• রবিবার (সকাল ১০:১৪)
    • ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

গুজব ঠেকানোয় ব্যর্থতাঃ দায়ভার কে নিবে???

মিয়া মোহাম্মদ হেলাল, যুক্তরাজ্য প্রবাসী,   ক্রাইম ডায়রির বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুখ্যাত নিয়াজির ভাতিজা ইমরান খান নিয়াজির এদেশীয় তথাকথিত মুসলিম সিপাহীরা ভারত কোথাও মলমূত্র ত্যাগ করলে সেখানে গিয়েও গন্ধ খুঁজতে শুরু করে। আর যদি সামান্যতম গন্ধ পায় তাহলে সেই গন্ধকে গুজবের মাধ্যমে সবার মাঝে ছড়িয়ে ছিটিয়ে দেয়। এটা অবশ্য তাদের রাজনৈতিক পূর্বপুরুষদের কাছ থেকে উত্তরাধিকারী সূত্রে পাওয়া। বৃহস্পতিবার সকালে কুমিল্লা সীমান্তের একটি মূল ঘটনাকে আড়াল করে তেমনি ভাবে গুজব ছড়িয়ে সবার মাঝে ভারত বিরোধী প্রচার চালাচ্ছে। অথচ মূল ঘটনা হলো-

বৃহস্পতিবার সকালে কুমিল্লার আশাবাড়ি সীমান্ত এলাকায় জলিল ও হাবিল নামে দুই মাদক কারবারিকে ধরতে ছদ্মবেশে তাদের কাছ থেকে মাদক কিনতে যান র‌্যাবের দুই নারী সোর্স। জলিল ও হাবিব মাদক বিক্রির কথা জানিয়ে দুই নারী সোর্সকে সীমান্তের ওপারে নিজেদের বাড়িতে নিয়ে যান। এদিকে খবর পেয়ে অপেক্ষামান র‌্যাব সদস্যরা ভারতের সীমানায় ঢুকে জলিল ও হাবিলকে আটকের চেষ্টা করেন। বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয়রা এবং মাদক কারবারিরা র‌্যাবের তিন সদস্য এবং দুই নারী সোর্সকে মারধর করেন। পরে সকাল নয়টার দিকে বিএসএফ তাদের আটক করে। তাদের ফেরাতে তৎপরতা শুরু করে র‌্যাব ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি। দীর্ঘ আলোচনার পর বিকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে তাদের ফেরত আনা হয়।

এটা নিয়ে শুরু হয় গুজব।।।অবশ্য এটা নিয়ে গুজব প্রচারকারীদের দোষ দিয়ে লাভ নেই। জন্মই যাদের আজন্ম পাপ।গুজবইতো তাদের হাতিয়ার। গুজবকারীরা গুজব ছড়াবে।চোর চুরি করবে,এটাই স্বাভাবিক।। ঠেকাবে পুলিশ প্রশাসন। চোর৷ ধরবে,,বিচারের আওতায় আনবে পুলিশ বাহিনী।তাদের পরিচালক তথা কর্তা হলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহোদয়। তারা ব্যর্থ হলে তার দায়ভার তার কাঁধেই বর্তায়।  । এটাই স্বতঃসিদ্ধ কথা।। ঠিক তেমনি গুজব ছড়ানো হচ্ছে ইলেকট্রনিকস মাধ্যমে। সামাজিক মাধ্যমে–ফেসবুক,টুইটার ইত্যাদি ইত্যাদি। সেগুলো পরিচালনার জন্য সরকারের নির্দিষ্ট বিভাগ আছে।। তাদেরই দায়িত্ব সেই মাধ্যমের গুজব ঠেকানোর ব্যবস্থা নেয়া।। বিদ্যুতে গোলযোগ দেখা দিলে সেন্ট্রালি কন্ট্রোল করা হয়। গ্যাস লাইনে প্রবলেম হলে সেন্ট্রালি কন্ট্রোল হয়। সব বিষয়েই সেন্ট্রালি কন্ট্রোল হচ্ছে। কিন্তুু সামাজিক মাধ্যমে বার বার গুজব ছড়ানো হচ্ছে। বার বার দেশকে অশান্ত করার চেষ্টা হচ্ছে। কিন্তু, গুজব নিয়ন্ত্রনে; গুজব ছড়ানোর মাধ্যমগুলোকে কন্ট্রোলের কি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে তা জাতি জানতে চায়।।। নাকি যারা দায়িত্বে আছেন তারা  ব্যর্থ হচ্ছেন।। হলে; এর দায়ভার কে নিবে, তা স্পষ্ট করা এখন সময়ের সবচেয়ে জরুরী দাবী।।

(লেখক, যুক্তরাজ্য প্রবাসী-মুক্তচিন্তার মূর্তপ্রতীক,দেশপ্রেমিক, আওয়ামী অনলাইন এক্টিভিস্ট, আওয়ামীলীগ গবেষক,  বঙ্গবন্ধু ও শেখহাসিনার  সূর্য সৈনিক।।।)

Total Page Visits: 66770

র‌্যাব ৪ এর সাফল্যঃ রাজধানীর শাহআলীতে বিশেষ অভিযানেে অস্ত্র ও মাদকসহ অস্ত্র ব্যবসায়ী আটক

আরিফুল ইসলাম কাইয়ুম, মিরপুর প্রতিনিধিঃঃ

ধারাবাহিক অভিযানের অংশ হিসেবে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে   রাজধানীর শাহআলী এলাকায় অভিযান চালিয়ে  ০২ টি বিদেশী পিস্তল, ০৬ রাউন্ড গুলি, ০২ টি খালি ম্যাগাজিন এবং ১০০ পিস ইয়াবাসহ ০১ জন মাদক ও অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রেফতার করেছে RAB 4.  সুত্রে জানা গেছে,  ১০ অক্টোবর ২০১৯ তারিখ ১৯.২০ ঘটিকা হইতে ১০ অক্টোবর ২০১৯ ইং সন্ধা ২০.১৫ ঘটিকার পর্যন্ত গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল পুলিশ সুপার নরেশ চাকমা এবং সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ রিফাত বাশার তালুকদার এর নেতেৃত্বে শাহআলী থানাধীন গোড়ান চটবাড়ীর বেড়িবাধের  ন্যাশনাল বোটানিক্যাল গার্ডেনের ৩ নম্বর গেইটের সামনে অভিযান পরিচালনা করে আসামীর হাতে থাকা একটি লাল রঙের শপিং ব্যাগের ভিতরে একটি স্বচ্ছ পলিথিনের মধ্যে প্যাচানো একটি চেক লুঙ্গি দ্বারা মোড়ানো আবস্থায় ০২ টি বিদেশী পিস্তল, ০৬ রাউন্ড গুলি, ০২ টি খালি ম্যাগাজিন, আসামীর পরিহিত প্যান্টের সামনের ডান পকেট হতে ১০০ পিস ইয়াবা এবং ০১ টি মোবাইলসহ মাদক এবং অস্ত্র ব্যবসায়ী মোঃ সেলিম রেজা (৪১), জেলা-চাপাইনবাবগঞ্জ’কে গ্রেফতার করে।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে , আসামী মোঃ সেলিম রেজা (৪১) দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন সময় রাজধানীর মিরপুর এলাকায় বিভিন্ন লোকের কাছে অস্ত্র ক্রয়-বিক্রয় করে আসছে এবং চাপাইনবাবগঞ্জ এলাকায় অস্ত্র ও মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত।

ক্রাইম ডায়রি///ক্রাইম//আইন শৃঙ্খলা//রাজধানী

Total Page Visits: 66770

৪ কোটি টাকা ফেরত দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সাবেক ছাত্রলীগনেতা আবু তৈয়ব”

৪ কোটি টাকা ফেরত দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন
সাবেক ছাত্রলীগনেতা আবু তৈয়ব

বিশেষ প্রতিনিধিঃঃ

৮ অক্টোবর জমকালো অনুষ্ঠানাদির মধ্যদিয়ে উদ্বোধন হয়েছে নগরীতে বায়েজিদ সবুজ উদ্যান ৷ এটির উদ্বোধন করেন সাবেক গণপূর্তমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারনী ফোরামের সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি ৷ তবে, এ খবরটির চেয়েও বড় খবর হয়ে এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইয়াল হয়েছেন বায়েজিদ সবুজ উদ্যানের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মালিক ৷ সবুজ উদ্যানটি নিমার্ণে ১২ কোটি ৭৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয় গণপূর্ত অধিদপ্তর । ঠিকাদারী কাজ পেয়েছিলেন আবু তৈয়ব নামের একজন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ।

ঠিকাদার আবু তৈয়ব ৮ কোটি ২৩ লাখ টাকা দিয়ে মানসম্মতভাবে কাজটি সম্পন্ন করে বাকি সাড়ে ৪ কোটি টাকা ফেরত দেন গণপূর্ত অধিদপ্তরকে। চায়লে অবশিষ্ট সাড়ে ৪ কোটি টাকা বিল ও খরচ দেখিয়ে অনায়াসেই ঠিকাদার আবু তৈয়ব নিজের করে নিতে পারতেন বলেও অনেকের অভিমত । তবে, তিনি তা করেননি, ফলে এখন তাঁর সততার এ খবর চট্টগ্রামই কেবল নয় সমগ্র দেশজুড়ে ভাইয়াল হয়েছে ৷ বিশেষ করে দেশে ঠিকাদার জি কে শামীমদের বিরুদ্ধে যখন দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চলছে, ঠিক সেই মুহুর্তে আবু তৈয়ব নয়া দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন ৷ জানা যায় আবু তৈয়ব চট্টগ্রাম উত্তরজেলা ছাত্রলীগের সদ্য গত কমিটির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন ৷ তাঁর বাড়ী রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় ৷ তিনি তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের অনুসারী হিসেবে পরিচিত ৷

কিছু অনুপ্রবেশকারী, বিশ্বাসঘাতক, হাইব্রিড, টেন্ডারবাজ, সন্ত্রাসী, মাদকসেবীদের কারণে ছাত্রলীগের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস ও ঐতিহ্য যখন প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে বারংবার ঠিক তখনই মানবিক ও সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে চট্টগ্রাম উত্তরের সাবেক সাধারণ সম্পাদক,রাঙ্গুনিয়ার কৃতি সন্তান, মোহাম্মদ আবু তৈয়ব।

ক্রাইম ডায়রি// জাতীয়

Total Page Visits: 66770

বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধঃঃ সকল দাবী মানলেন বুয়েট প্রশাসন

বুয়েট প্রতিনিধিঃ

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে ক্যাম্পাসে সব ধরনের রাজনী‌তি নিষিদ্ধ করেছে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। একই সাথে শিক্ষার্থীদের ১০ দফা দাবিও মেনে নিয়েছেন তারা। এছাড়া আবরার হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত ১৯ শিক্ষার্থীকেও বুয়েট থেকে সাময়িক বহিষ্কারের ঘোষণা দিয়েছেন ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম।

আজ শুক্রবার বিকেলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে বুয়েট ভিসির বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ভিসি, ডিএসডব্লিউ পরিচালকসহ সাতজন মঞ্চে বসেন। শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও বিভিন্ন অনুষদের ডিনরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। বুয়েট ক্যাম্পাস অডিটোরিয়ামে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে, বুয়েট ক্যাম্পাস অডিটোরিয়ামে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের একাংশ প্রবেশ করলেও অডিটোরিয়াম ভরে যাওয়ায় অনেক শিক্ষার্থী বাইরে রাস্তায় বসে অবস্থান করেন।

ক্রাইম ডায়রি//শিক্ষাঙ্গন

Total Page Visits: 66770

নারায়নগঞ্জে ১৬ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মানহানী মামলার প্রতিবাদে বিএমএসএফ ও জাতীয় সাংবাদিক পরিষদ

ইমাম বিমানঃ
সম্প্রতি র‍্যাবের মাদক, জুয়া বিরোধী চলমান অভিযানে যখন ক্যাসিনো সম্রাটদের আটক করা হয়েছে ঠিক তখনই ক্যাসিনো সম্রাটদের সহযোগীদের নামে সংবাদ প্রকাশ করার জের ধরে নারায়ণগঞ্জে ১৬ জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আদােলতে দুটি পৃথক মানহানি মামলা দায়েরের ঘটনায় প্রতিবাদ সহ মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানিয়েছে ” বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ” বিএমএসএফ” এবং জাতীয় সাংবাদিক পরিষদ।
বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) “বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ” বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শহীদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর যৌথ এক বিবৃতিতে নারায়ণগঞ্জের ১৬ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা ও দিনাজপুরের হিলিতে ” ডেইলী ইন্ডাষ্ট্রি ” পত্রিকার প্রতিনিধি সোহেল রানাকে পুলিশ কর্তৃক লাঞ্ছিত করায় তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন।
একই উদ্দেশ্যে মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে জাতীয় সাংবাদিক পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি আতিকুল্লাহ আরেফিন রাসেল অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারসহ সাংবাদিকদের তথ্যমুলক সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে নিরাপত্তার দাবী জানান।
এ সময় বিএমএসএফ’র  ও জাতীয় সাংবাদিক পরিষদের   কেন্দ্রীয় কমিটির বিবৃতির মাধ্যমে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দিয়ে সংবাদিকদের বাকরুদ্ধ করার পায়তারা করছেন একদল গোষ্ঠী। যারা ক্ষমতাসীন দলের ব্যানেরে থেকে ক্ষমতার অপব্যাবহার করার মাধ্যমে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা করে সংবাদ প্রকাশে বাধার সৃষ্টি সহ দেশে মাদক, জুয়াকে তড়ান্বিত করতে উঠে পড়ে লেগেছে। তাই আজ নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী ও সিদ্ধিরগঞ্জের এসও রোডের স্বপন মন্ডল বাদী হয়ে বিভিন্ন পত্রিকার ১৬জন সাংবাদিকের নামে মানহানির একাধিক মামলা দায়ের করে।আমরা নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিকদের সাথে যোগাযোগ করে জানতে পারি দুটি মামলার একটির বাদী হচ্ছেন সিদ্ধিরগঞ্জের এসও রোডের স্বপন মন্ডল। তার পক্ষে মামলাটি দায়ের করেন অ্যাড. হাবিবুর রহমান মাসুম এবং অপরটির বাদী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী। তার পক্ষে মামলাটি দায়ের করেন অ্যাড. মশিউর রহমান শাহিন। স্বপনের করা মামলায় ৭ পত্রিকার ১৪ জন এবং মীর সোহেল আলীর মামলায় এক পত্রিকার দু’জন সাংবাদিককে বিবাদী করা হয়েছে।
স্বপন তার মামলায় দাবি করেন যে, ‘ক্যাসিনো ডন সেলিম প্রধান গ্রেফতার হলেও প্রকাশ্যে ঘনিষ্ট বন্ধু স্বপন মন্ডল’, ‘ক্যাসিনো ডন সেলিম প্রধান গ্রেফতার আতঙ্কে গা ঢাকা দিয়েছে স্বপন মন্ডল’ ইত্যাদি শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদ মিথ্যা বলে দাবি করেছেন তিনি। একই সাথে তিনি দাবি করেছেন যে, এসকল সংবাদ প্রকাশের কারণে তার ৫ কোটি টাকার মানহানি ঘটেছে উল্লেখ করে নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রকাশিত দৈনিক সচেতন পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক কাজী  ইসলাম, একই পত্রিকার বার্তা সম্পাদক ইমতিয়াজ আহম্মেদ, দৈনিক সময়ের নারায়ণগঞ্জ এর প্রকাশক সম্পাদক জাবেদ আহম্মেদ জুয়েল, বার্তা সম্পাদক শাহীন, দৈনিক সংবাদ চর্চা এর প্রকাশক সম্পাদক মুন্না খাঁন, বার্তা সম্পাদক আনোয়ার হাসান, দৈনিক স্বাধীন বাংলাদেশ এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মো. ইলিয়াস মোল্লা, বার্তা সম্পাদক জসিম উদ্দিন, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সোহেল রানা, দৈনিক যুগের চিন্তা এর প্রকাশক সম্পাদক আবু আল মোরসালিন বাবলা, নির্বহী সম্পাদক এজাজ কোরেশী এবং দৈনিক মাতৃভূমির খবর এর প্রকাশক সম্পাদক মো. রেজাউল করিম, উপদেষ্টা সম্পাদক আনায়ারুল ইসলাম, নির্বাহী সম্পাদক এনামুল কবিরকে আসামী করে আদালতে মামলা দায়ের করেন।অপরদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলীর বিরুদ্ধে ডান্ডিবার্তায় প্রকাশিত সংবাদ অসত্য মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্যে ভরপুর। এর ফলে তারও মানহানি ঘটেছে বলে তিনি দাবি করে দৈনিক ডান্ডিবার্তা পত্রিকার প্রকাশক- সম্পাদক হাবিবুর রহমান বাদল এবং একই পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার আ. রহিমের বিরুদ্ধে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।
এ বিষয় দেশের একমাত্র ও অন্যতম সাংবাদিক বান্ধব সংগঠন বিএমএসএফ  ও জাতীয় সাংবাদিক পরিষদ   নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে মামলা দুটি প্রত্যাহারের দাবি করেন সেই সাথে মামলা প্রত্যার না করা হলে কঠোর আন্দোলনেরও হুশিয়ারী দেন।
ক্রাইম ডায়রি//জাতীয়
Total Page Visits: 66770