• শনিবার ( রাত ১১:০০ )
    • ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

এন্টি টেররিজম ইউনিটের হাতে হিজবুত তাহরীরের সংগঠক তানভির গ্রেফতার

ক্রাইম ডায়রি ডেস্কঃঃ

জঙ্গিবাদ একটি জাতীয় সমস্যা। জঙ্গিদের হাতে তার নিজ পরিবারও নিরাপদ নয় ।  অন্যের   জীবন কিংবা পরিবারের তবে কি অবস্থা তা সহজেই অনুমেয়৷ জঙ্গিবাদ নিরসন ও দমনের জন্য বাংলাদেশ সরকারের সবচেয়ে সময়োপযোগী ও সাহসী পদক্ষেপ বাংলাদেশ পুলিশের এন্ট্রি টেররিজম ইউনিট গঠন । গঠনের পর হতেই  ধারাবাহিক সাফল্যের অংশ হিসেবে  এন্টি টেররিজম ইউনিট, বাংলাদেশ পুলিশ নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন হিযবুত তাহরীর বাংলাদেশ এর সক্রিয় সংগঠক তানভীর হাসান নাঈম (৩১) কে শেখদি, মাতয়ুাইল, যাত্রাবাড়ি, ঢাকা থেকে গত ২২/০৭/২০১৯ ইং তারিখে দিবাগত রাত্রিতে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত তানভীর ঢাকা কলেজ থেকে এমবিএ সম্পন্ন করেছেন এবং আলফ্রেড ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের একাউন্টিং এর সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। সে ২০০৮ সাল হতে হিযবুত তাহরীর বাংলাদেশ এর সাথে সাংগঠনিকভাবে যুক্ত হয়। সে ঢাকা মহানগরীর প্রচারণা ও দাওয়া বিভাগের অন্যতম প্রধান হিসেবে কাজ করছিল।

আটককৃত তানভীর ইতোপূর্বে ২০০৯ সালে পল্টন থানায় হিযবুত তাহরীর সংশ্লিষ্ট ঘটনায় দায়েরকৃত একটি মামলায় গ্রেফতার হয়েছিল বলে জানা গেছে ।
গত ০৫ জুলাই, ২০১৯ ইং তারিখে নিষিদ্ধ ঘোষিত হিযবুত তাহরীর এর “আসন্ন খিলাফত রাষ্ট্রের অর্থনৈতিক রূপরেখা” শীষর্ক অনলাইন সম্মেলনের লিফলেট বিতরণ, পোষ্টারিংসহ অনলাইন প্রচারের সাথে গ্রেফতারকৃত তানভীর হাসান @ নাঈম সরাসরি
সম্পৃক্ত ছিল। গ্রেফতারকৃত নাঈম ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে লিফলেট বিতরণ, পোষ্টারিং, এলাকা ভিত্তিক হালাকা প্রোগ্রামসহ অনলাইনে প্রচারণার মাধ্যমে হিযবুত তহরীর কাজকে বেগবান করার জন্য সক্রিয়ভাবে দায়িত্ব পালন করে আসছিল।
গ্রেফতারকালে এন্টি টেররিজম ইউনিটের সদস্যগণ তানভীর হাসান  নাঈমের ভাড়া বাসা হতে প্রচুরসংখ্যক সরকার বিরোধী লিফলেট, পুস্তিকাসহ উগ্রবাদী বই, ০৪ (চার) টি মোবাইল ফোন, ০১ (এক) টি ল্যাপটপ, পেনড্রাইভ এবং একটি হার্ডডিস্ক উদ্ধার করে জব্দ করে। দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির অপচেষ্টা ও খেলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য সরকার বিরোধী ষড়যন্ত্র করায়
“সন্ত্রাস বিরোধী আইন ২০০৯ (সংশোধনী ২০১৩)” এর ৮/৯/১০/১১/১২/১৩ ধারায় যাত্রাবাড়ি থানায় মামলা নং-১১২ তারিখ-২৩/০৭/২০১৯ ইং দায়ের করা হয়েছে।

ক্রাইম ডায়রি//ক্রাইম//আইন শৃঙ্খলা

6894total visits,220visits today

এন্টি টেররিজম ইউনিট এর উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপী মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

আতিকুল্লাহ আরেফিন রাসেলঃঃ

মিডিয়া ও প্রশাসন পাশাপাশি কাজ করলে টেরোরিস্টরা ভয় পাবেই।  সাধারণ মানুষের মনে পুলিশ ভীতি যতটা কাজ করে ঠিক ততটাই মিডিয়ার প্রতি অনুরক্ত তারা। সুতরাং, খুঁটিয়ে তথ্য বের করার একটা সুযোগ এখানে থেকে যায়।।। সম্প্রতি, এন্টি টেররিজম ইউনিট (এটিইউ) ‘র উদ্যোগে এবং প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ ( পিআইবি) ‘র সার্বিক সহোযোগিতায় তিনদিন ব্যাপী মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট প্রশিক্ষণ অদ্য ২৫ জুলাই ২০১৯ সম্পন্ন হয়েছে। কার্যকর গণমাধ্যম ব্যবস্থাপনা ও পুলিশ – গণমাধ্যমের পেশাদারিত্বের ভিত্তিতে সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে এটিইউ কর্মকর্তাদের জন্য এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।

এটিইউ কর্মকর্তাদের সাথে পাঁচজন বিশিষ্ট সাংবাদিক যাঁরা সন্ত্রাসবাদ ও উগ্রবাদ নিয়ে কাজ করেন, এ প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণ সমাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি- অতিরিক্ত আইজিপি, এন্টি টেররিজম ইউনিট জনাব মোহাম্মদ আবুল কাশেম, বিপিএম – সেবা, বিশেষ অতিথি ডিআইজি জনাব মো: দিদার আহম্মদ, বিপিএম,পিপিএম এবং প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ এর মহাপরিচালক জনাব জাফর ওয়াজেদ প্রশিক্ষণার্থীদের সনদপত্র প্রদান করেন।

সমাপনী অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত আইজিপি মহোদয় তাঁর বক্তব্যে প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান ও কর্মকৌশল জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদ প্রতিরোধে পুলিশ ও গণমাধ্যমকে আরো সহযোগী করবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। ডিআইজি মহোদয় পুলিশ ও গণমাধ্যম পেশাদারিত্ব বজায় রেখে দেশ ও মানুষের জন্য কী ধরণের ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে পারে সে বিষয়ে বক্তব্য রাখেন। পিআইবি মহাপরিচালক সমাজ এবং রাষ্ট্রের প্রতি পুলিশ ও সাংবাদিকদের দায়বদ্ধতার প্রতি বিশেষ গুরুত্বারোপ করে এটিইউকে এ উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সাধুবাদ জানান।

ক্রাইম ডায়রি//স্পেশাল///মহানগর//আইন শৃঙ্খলা

6894total visits,220visits today

জ্বর হলেই সাবধানঃ ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে গাড়ির মধ্যেই মৃত্যু নিরাপত্তা কর্মীর

নড়াইল সংবাদদাতাঃঃ

জ্বর হলেও অনেকে তেড়ামি করেন।সঠিকভাবে ঔষধ খেতে চাননা। আবার অসেচতন থেকে মশা নিধনেও কোন উদ্যোগ নেননা। তাদের জন্য দুঃসংবাদ।৷ সম্প্রতি  রাজধানীতে ‘ডেঙ্গু’ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে বাড়ি ফেরার পথে নড়াইলের এক নিরাপত্তা কর্মী হানিফ পরিবহনের বাসে মারা গেছেন।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে বাসটি ঢাকা থেকে নড়াইল আসে। মারা যাওয়া ইকরাম হোসেন (৪৫) সদর উপজেলার বাগডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

ইকরামের চাচাতো ভাই কবির হোসেন বলেন, ‘ইকরাম ঢাকায় একটি সিকিউরিটি কোম্পানিতে চাকরি করতেন। ডেঙ্গু রোগে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তিনি বাড়ি চলে আসছিলেন।’

হানিফ পরিবহনের রূপগঞ্জের ম্যানেজার আকবর মন্ডল জানান, বুধবার রাতে ঢাকার আব্দুল্লাহপুর থেকে তাদের বাসে ওঠেন ইকরাম। পথে নড়াইলের লোহাগড়ায় মধুমতী নদীর কালনা ফেরিঘাটে এসে বাসের যাত্রীরা নিচে নামলেও ইকরাম নামেননি। এ সময় গাড়ির লোকজন বুঝতে পারেন যে তিনি মারা গেছেন। পরে বাস সদর থানায় নেয়া হলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। সুতরাং, সময় থাকতেই সাধু সাবধান।  বাড়ির ভিতর জমে থাকাা পানি শুকিয়ে ফেলুন। ড্রেন পরিস্কার  করতে সচেষ্ট হোন ।

ক্রাইম ডায়রি//জেলা///

 

6894total visits,220visits today

সীমাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে ডেঙ্গু নিধন ও পরিচ্ছন্নতার উপর জরুরী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মোঃ শাহাদত হোসেন ভ্রাম্যমান প্রতিনিধিঃ

বগুড়া শেরপুর উপজেলা সীমাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের অডিটোরিয়ামে  ডেংঙ্গু মশক নিধন পরিচ্ছন্নতা ও গুজব ছেলেধরা উপর এক জরুরী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত মশক নিধনের উপড় গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন সীমাবাড়ী ইউনিয়ন সুনামধন্য সফল চেয়ারম্যান শ্রী যুক্ত বাবু গৌরদাস রায় চৌধুরী। তিনি সবাইকে সচেতন থাকার আহবান জানিয়ে বলেন, আমরা সবাই সাধারন মানুষকে ডেংঙ্গু মশা নিধনের ব্যাপারে  সচেতন কর।। বাড়ীর আশে পাশে নর্দমা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার পাশাপাশি কারো ডেঙ্গু জ্বর হলে  তাকে ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে সুচিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠাবো।তিনি আরো বলেন, বর্তমান সারা বাংলাদেশে ছেলেধরা গুজব ছড়িয়ে পড়েছে আপনারা কেউ এই গুজবে কান দিবেন না।

কাউকে সন্দেহ হলে –  চেয়ারম্যানকে অবগত করবেন। গনপিটুনি দিবেন না। এই গুলো গুজব ও মিথ্যা কথা – আপনারা গুজবে কান দিবেন না। আমার ইউনিয়নে এই ছেলেধরা গুজবে মাইকিং করে দেওয়া হয়েছে। মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় উপস্হিত ছিলেন–সচিব লিটন কুমার দত্ত,, সদস্য -মোঃ আব্দুল লতিফ ফকির ,     মোঃ রেজাউল করিম,    মোঃ শহিদুল ইসলাম , মোঃ জহুরুল  ইসলাম, মোঃ আমজাদ হোসেন, মোঃ হোসেন আলী  মহিলা সদস্যা—মোছাঃ মাজেদা খাতুন, মোছাঃ ফেরদৌসি পারুলসহ  ইউনিয়ন কাজী মাওলানা মোঃ আলমগীর হোসাইন, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি মোঃ শাজাহান আলী, জাতীয় সাপ্তাহিক ক্রাইম ডায়রি ও অনলাইন দৈনিক ক্রাইম ডায়রির ভ্রাম্যমাণ সংবাদদাতা- মোঃ শাহাদত হোসেনসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

ক্রাইম ডায়রি///জেলা//স্বাস্থ্যসেবা

6894total visits,220visits today