• বৃহস্পতিবার (রাত ১২:০০)
    • ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ২ লাখ ছাড়ালোঃ বাংলাদেশে ৩২৪ জন চিকিৎসক আক্রান্ত

শরীফা আক্তার স্বর্নাঃ

সারাবিশ্বে মহামারী করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ২ লাখের ও বেশি।  আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার বাংলাদেশ সময় রাত ১০টার দিকে এ সংখ্যা ছাড়িয়ে যায়। এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্যে ২১০ দেশটি দেশে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে।

সারাদেশে করোনাভাইরাসে আজ পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের মোট ৩২৪ জন চিকিৎসক আক্রান্ত হয়েছেন। অনেকে বলছেন যেখানে চিকিৎসকরাই আক্রান্ত তাতে নতুন করে জনগনকে এর ভয়াবহতার ব্যাপারে বলার আর কিছুই নেই। যে চিকিৎসকদের চিকিৎসায় তারা ভাল হবার আশা করে বসে আছেন সেখানে চিকিৎসকরাই আক্রান্ত ; লকডাউন মেনে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ঘরে থাকার ব্যাপারে এর চেয়ে বড় মেসেজ আর কি হতে পারে??

 

এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে ৮ লাখ ১৯ হাজারেরও বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন। যা শতকরা হিসেবে ৮০ ভাগ

করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ইউরোপ ও আমেরিকার মানুষ। শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৯ লাখের বেশি। আর করোনায় যে ২ লাখ মানুষ মারা গেছে তার এক চতুর্থাংশ অর্থাৎ ৫২ হাজারে বেশি মানুষ মারা গেছে যুক্তরাষ্ট্রে। একদিনে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যুর দিক দিয়েও দেশটিরে ধারে কাছে কেউ নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় মৃত্যুতে শীর্ষ দেশগুলোর মধ্যে বেশিরভাগ ইউরোপের। ইতালিতে ২৬ হাজার ৩৮৪, স্পেনে ২২ হাজার ৯০২, ফ্রান্সে ২২ হাজার ২৪৫, যুক্তরাজ্যে ২০ হাজার ৩১৯, বেলজিয়ামে ৬ হাজার ৯১৭, জার্মানিতে ৫ হাজার ৮০৫ ও নেদার‍ল্যান্ডসে মারা গেছে ৪ হাজার ৪০৯ জন।

চীনে প্রাদুর্ভাব শুরু হলেও দেশটিতে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা এখন ৪ হাজার ৬৩২। তবে এশিয়ায় ৫ হাজার ৬৫০ মৃত্যু নিয়ে চীনের উপরে রয়েছে ইরান। তুরস্কে মারা গেছে ২ হাজার ৬০০ জনের বেশি মানুষ। এদিকে আক্রান্তের দিক দিয়ে চীন ও ইরানের উপরে রয়েছে তুরস্ক। দেশটিতে এখন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৫ হাজার প্রায়।

এদিকে ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, সিঙ্গাপুর, ফিলিপাইন, জাপান ও বাংলাদেশসহ দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে করোনায় সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বাড়তে শুরু করেছে। তবে আগাম সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেওয়ার কারণে দক্ষিণ কোরিয়া, হংকং ও তাইওয়ানের মতো দেশ ও অঞ্চলগুলোতে সংক্রমণ অনেক কম।

যুক্তরাষ্ট্র সবার শীর্ষে—

এদিকে আক্রান্ত, মৃত ও সুস্থ তিনক্ষেত্রেই শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া সবচেয়ে টেস্টও বেশি হয়েছে দেশটিতে।

ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্যানুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে ৯ লাখ ২৯ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দেশটির ৫২ হাজারেরও বেশি মানুষ এ ভাইরাসে মৃত্যুবরণ করেছেন। আর সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ। আর দেশটির ৫০ লাখ ৭৬ হাজারেরও বেশি মানুষকে করোনা টেস্ট করা হয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৪১ জনে। আর নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৩০৯ জন। এ নিয়ে সর্বমোট আক্রান্ত চার হাজার ৯৯৮ জন।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোনো করোনা রোগী সুস্থ হয়নি। ফলে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ১১২ জনই রয়েছে।

শনিবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ৪২২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩ হাজার ৩৩৭ জনের পরীক্ষা করা হয়েছে।

সারাদেশে করোনাভাইরাসে আজ পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের মোট ৩২৪ জন চিকিৎসক আক্রান্ত হয়েছেন।

চিকিৎসকদের সংগঠন বাংলাদেশ ডক্টরস ফাউন্ডেশনের (বিডিএফ) প্রধান ডা. নিরুপম দাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মোট আক্রান্ত চিকিৎসকদের ২৫৫ জনই ঢাকার। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালের ১৬৩ জন, বেসরকারি হাসপাতালের ৭৬ জন এবং বাকি আরো ২০ জন চিকিৎসক রয়েছেন।

এছাড়া ময়মনসিংহ বিভাগে ২৬ জন, চট্টগ্রামে বিভাগে ১২ জন, খুলনা বিভাগে সাতজন, বরিশালের আট জন, সিলেটে দুজন এবং রংপুর বিভাগের তিনজন চিকিৎসকের মধ্যে এ পর্যন্ত করোনা শনাক্ত করা গেছে।

এক্ষেত্রে চিকিৎসকদের জন্য উন্নতমানের সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই),মাস্ক এবং সেফটি চশমার বিকল্প নেই বলে জানান সংগঠনটির প্রধান ডা. নিরুপম দাস।

ক্রাইম ডায়রি//জাতীয়

 

Total Page Visits: 80 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Send this to a friend