• শনিবার ( রাত ১১:০১ )
    • ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

চোরের মায়ের বড় গলাঃশেরপুর হাসপাতালের ষ্টোর কিপার পলাতক!

বিশেষ প্রতিবেদনঃ

বেশ কিছুদিন হলোই বগুড়া জেলার শেরপুর থানার স্বাস্থ্যসেবা, ঔষধ ব্যবসা ও ভূয়া ডাক্তার নিয়ে আলোচনা চোখে পড়ার মত।  ইতোপূর্বে শহরের হাসপাতাল রোডের একটি ঔষধের দোকান হতে মূমুর্ষ রোগীর জন্য ঔষধ আনতে গেলে মেয়াদোত্তীর্ন ঔষধ ধরিয়ে দেয়া হয়। ক্রাইম ডায়রির অনলাইন দৈনিকে এ বিষয়ে সংবাদ পরিবেশিতও হয়েছিল।

শেরপুরের বহুল পরিচিত ও প্রচারিত পত্রিকা আজকের শেরপুর এ  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের   নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে নিউজ প্রকাশিত হয়।        অনিয়ম ও দুর্নীতির খবর প্রকাশ করায় বড় বড় কথা বলেছেন হাসপাতালের প্রধান কর্মকর্তা। কিন্তু সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে নিজেরা কতটা দুর্নীতির অন্ধকারে নিমজ্জিত তা কখনও ভেবে দেখেননি। এবার সত্যি সত্যিই বেরিয়ে আসছে থলের বিড়াল। বগুড়ায় কোটি টাকার সরকারি ওষুধ উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশী তদন্তে বেরিয়ে এসেছে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ষ্টোর কিপার বিরাজ উদ্দিন মন্ডলের নাম। তিনি বগুড়া থেকে শেরপুর হাসপাতালে ওষুধ পৌছানোর পুর্বেই তা কালোবাজারে বিক্রি করে দিতেন। বগুড়া সদর থানার পুলিশ সাধারণ মানুষকে বিনামুল্যে দেবার জন্য সরকারের দেয়া ওষুধ কালোবাজারে বিক্রির সাথে তার সম্পৃক্ততা নিশ্চিত হয়েছে। আর বিরাজ উদ্দিন মন্ডল গত ২২ জুন থেকে চার দিনের ছুটি নিয়ে আর কাজে যোগদান করেননি। তিনি এখন পলাতক রয়েছেন।

জনমনে প্রশ্ন হাসপাতালের ষ্টোর কিপার কি একাই সরকারি ওষুধ কালোবাজারে বিক্রি করতে পারেন? এর সাথে কি রাঘববোয়াল আর কেউ জড়িত নেই?যে হাসপাতালের ষ্টোর কিপার কোটি টাকার সরকারী ঔষধ চুরির সাথে জড়িত সেই হাসপাতালে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডা. আব্দুল কাদের এর বড় বড় নীতিবাক্য চোরের মায়ের বড় গলা নয় কি? জনগনের সাথে এমন প্রতারণার দায় কার?

ক্রাইম ডায়রি// ক্রাইম//স্বাস্থ্য//জেলা/সাইফুল বারী

38total visits,2visits today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *