• সোমবার (বিকাল ৪:৪৩)
    • ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

রায়গঞ্জে জেলা আওয়ামিলীগ নেতাকে হত্যাচেষ্টায় প্রতিবাদসভা

রায়গঞ্জ থেকে স.ম আব্দুস ছাত্তারঃ

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে চান্দাইকোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল হান্নান খানের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে, সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে রায়গঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃস্পতিবার বেলা ২ টায় উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয় চত্ত¡রে অনুষ্ঠিত প্রতিবার সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় এমপি অধ্যাপক ডাঃ আব্দুল আজিজ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে,   অধ্যাপক ডাঃ আব্দুল আজিজ এমপির এ হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন এ নিসংশ ঘটনার ৫ দিন অতিবাহীত হলেও দুস্কৃতিকারীদের চিহ্নিত করা বা গ্রেফতার না হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেন। পুলিশ প্রশাসনের প্রতি নির্দেশ দিয়ে বলেন দ্রুত আসামীদের চিহ্নত করে গ্রেফতার পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে,   অধ্যাপক ডাঃ আব্দুল আজিজ এমপির এ হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন এ নিসংশ ঘটনার ৫ দিন অতিবাহীত হলেও দুস্কৃতিকারীদের চিহ্নিত করা বা গ্রেফতার না হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেন।

এ সময়ে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সাইদুল ইসলাম চাঁন, মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি লিনা হক লুৎফা, সাধারণ সম্পাদক ফুয়ারা বেগম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শরিফুল আলম শরিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ঝন্টু, যুবলীগ সভাপতি জাহিদুল ইসলাম মাইকেল, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন সরকার, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কামান্ডের সভাপতি কে.এম রফিকুল ইসলাম প্রমূখ। উল্লেখ্য ২৮ জুন ভোর ৬ টায় জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও চান্দাইকোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল হান্নান খানের নিজ স্বয়ন কক্ষে এক মুখোশধারী সন্ত্রাসী প্রবেশ করে অর্তকিত ভাবে এলো পাথারী কুপিয়ে মারাত্বক আহত করে পালিয়ে যায়।

ক্রাইম ডায়রি//রাজনীতি//জেলা

Total Page Visits: 66255

বন্ধ হয়নি প্রাইভেট বাণিজ্যেঃ করোনা ঝুঁকিতে ঝিনাইদহের শিক্ষার্থীরা

তারেক জাহিদুর রহমান, ঝিনাইদহঃ


ঝিনাইদহে শিক্ষার্থীদের করোনা সংক্রমণ থেকে দূরে রাখতে সরকার যখন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখছেন ঠিক সেই মুহুর্তে ঝিনাইদহ জেলা সদর উপজেলা সহ পার্ষবর্তী সকল উপজেলার এক শ্রেণীর শিক্ষক ও কলেজ পড়ুয়া ছাত্ররা তাদের কোচিং বাণিজ্য অব্যাহত রেখেছেন। সামাজিক দূরত্ব,স্বাস্থ্য বিধির কোন তোয়াক্কা না করেই এসব শিক্ষক ও কলেজ পডুয়া ছাত্ররা দলবদ্ধভাবে নিজ বাসায় অথবা কোচিং সেন্টারে সকাল-সন্ধ্যা তাদের কোচিং বাণিজ্য চালাচ্ছেন। করোনার জন্য স্কুল কলেজ বন্ধ থাকার সুযোগে খোদ এমপিও ভুক্ত শিক্ষকরাও কোচিংয়ে জড়িয়ে পড়ায় উপজেলা জুড়েই চলছে অবৈধ কোচিং বাণিজ্য।

হাইকোর্টের নির্দেশ থাকা সত্তেও এ উপজেলায় বন্ধ হয়নি কোচিংবাণিজ্য ! অর্থের লোভে খোদ ‘মানুষগড়া কারিগর নামের অনেক শিক্ষকই শিক্ষার নীতিমালা ও নৈতিকতা ভুলে গিয়ে আদর্শ বিচ্যুত হচ্ছেন। ফলে কোচিং বাণিজ্য এখন তুঙ্গে। কাঙ্খিত শিক্ষার পিছনে বছরে লাখ লাখ টাকা অতিরিক্ত ব্যয় করতে হচ্ছে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের। শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণ বহুগুণে বাড়িয়ে তুলেছে কোচিং সেন্টারগুলো।

হাইকোর্টের নির্দেশ থাকা সত্তেও এ উপজেলায় বন্ধ হয়নি কোচিংবাণিজ্য ! অর্থের লোভে খোদ ‘মানুষগড়া কারিগর নামের অনেক শিক্ষকই শিক্ষার নীতিমালা ও নৈতিকতা ভুলে গিয়ে আদর্শ বিচ্যুত হচ্ছেন।

অভিযোগ রয়েছে, সরকার ঘোষিত নিয়ম-নীতিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে খোদ এমপিও সুবিধাভোগি শিক্ষকরা একদিকে কোচিং সেন্টারের মালিক হয়ে যেন শিক্ষার প্রসারের নামে শিক্ষা বাণিজ্যের আদলে ‘কোচিং সেন্টার’ নামক দোকান খুলে বসেছেন। জানা যায়, উপজেলার খ্যাতনামা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর স্বনামধন্য শিক্ষকরাও নিজেদের তত্ত¡াবধানে বাসাবাড়িতে সাইনবোর্ডবিহীন কোচিং ব্যবসা জাঁকিয়ে বসেছেন। ব্যাচে ব্যাচে শিক্ষার্থীরা সেখানে পড়ছে। একশ্রেণির কোচিংবাজ শিক্ষকদের চাপে সিংহভাগ ছাত্রছাত্রী কোনো না কোনোভাবে মূল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বাইরে অর্থের বিনিময়ে কোচিংয়ে পড়ছে। এ হিসাবে প্রায় ৮০ শতাংশ শিক্ষার্থীই এক পর্যায়ে কোচিংয়ের ওপর নির্ভরশীল হতে বাধ্য। ফলে কোচিং সেন্টারগুলোর মালিক শিক্ষকরা শিক্ষার নাম ভাঙিয়ে বছরজুড়েই লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। শিক্ষকরা শিক্ষা নামের নগ্ন বাণিজ্যে বেপরোয়াভাবে জড়িয়ে পড়ায় নিজ স্কুলের শিক্ষকদের কাছেই গণিত, ইংরেজি, রসায়ন, পদার্থসহ পাঠ্যসূচির বিষয়গুলো শিক্ষার্থীরা কোচিং করতে বাধ্য হচ্ছে। কোচিং করার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে শিক্ষার্থীদের অকপট উত্তর ‘ক্লাসে যা পড়ায়, তাতে হয় না। সেখানে ভালোমতো বোঝানো হয় না। তাই কোচিং তো করতেই হয়। শত শত শিক্ষার্থীর একই মনোভাব ক্লাসে বুঝি না। বোঝানো হয় না। অভিভাবকের মুখেও একই কথা শুনা যায়। অভিভাবদের অভিযোগ, সরকার কোচিং নিষিদ্ধ করেছে। সন্তানের ভালো রেজাল্টের আশায় কোচিং সেন্টারে পড়াতে বাধ্য হতে হয়। এ বিষয়ে উপজেলার নগরবাথান গ্রামের একজন অভিভাবক জানান, শুধু করোনা বা সংক্রমণ এড়াতে প্রাইভেট পড়াতে পারছি না ছেলেকে। নগর বাথান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক জানান, একমাত্র অজ্ঞ শিক্ষক এবং অভিভাবকরাই কেবল দেশের এ ক্রান্তিকালে ছেলে-মেয়েদের প্রাইভেট মাষ্টারদের কাছে পাঠাচ্ছে। এ ছাড়া নিজের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় অবসর সময়টি কাজে লাগানো যাচ্ছে। কোচিং ও প্রাইভেট শিক্ষকদের নামের তালিকায় নগর বাথান বাজার এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, একটি কোচিং এর পরিচালনা করেন এম এ খালেক কলেজের প্রভাষক মোঃ নজরুল ইসলাম। সেখানে নজরুল ইসলাম সহ ৬জন কলেজ পড়ুয়া ছাত্র দিয়ে কোচিং চালানো হচ্ছে। এরা হল দেলয়ার, হাবিব, সোহাগ, সোহেল, ও সাগর।একই এলাকার সেন্টু নামে তার নিজ বাড়িতে ১০/১৫ জন শিক্ষার্থী নিয়ে একটি ছোট খুপড়ির মধ্যে শিক্ষার্থীদের গাদাগাদি করে বসিয়ে পড়াচ্ছেন।সে পেশাই একজন প্রাইভেট শিক্ষক নামেই পরিচিত। এছাড়াও নগর বাথান বাজারের পশ্চিম পার্শে নজরুল ইসলাম নামে আরেক শিক্ষক। সে রাম নগর দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক। কোন স্বাস্থ্য সেবা না মেনেই তার নিজ বাড়িতে ২০/৩০ জন করে ২/৩ ব্যাচে শিক্ষার্থীদের পড়াচ্ছেন।

এছাড়াও উপজেলার কালিচরন পুর ইউনিয়নের ‘মোসলেম উদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয়য়ে’র শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলমকে একি ইউনিয়নের ভগবান নগর স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদ্রাসায় বেশ কিছু ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে প্রাইভেট পড়াতে দেখা গেছে। এছাড়াও উপজেলার কুমড়াবাড়ীয়া ইউনিয়নের ঝপঝপিয়া গ্রামের সাগর ,ও জাহাঙ্গীর নামের ২জন প্রাইভেট শিক্ষক, তাদের নিজ বাড়িতে ও বাড়িতে বাড়িতে যেয়ে প্রাইভেট পড়ায় বলে জানা গেছে। কোটচাঁদপুর উপজেলারা গ্রামে ও শহরে প্রকাশে সাস্থবিধি না মনে প্রাভেট পড়ানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন অনেকে। স্কুল কলেজ মাদ্রাসাগুলো যেন করোনাই বন্ধ থাকার সুযোগে কোচিং ও প্রাইভেট সেন্টার হয়ে গেছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা শিক্ষা অফিসার সুশান্ত কুমার দেব বলেন, এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ কেউ করেনি।বিষয়টি তদন্ত করে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

ক্রাইম ডায়রি/// ক্রাইম//জেলা

Total Page Visits: 66255

উজিরপুর বড়াকোঠা ইউনিয়ন বিএনপি সভাপতির মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলে শোক

উজিরপুর প্রতিনিধিঃ

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার বড়াকোঠা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোঃ আবু হানিফ বেপারী (৬২) ১ জুলাই দুপুর ১টায় বার্ধক্য জনিত কারণে ঢাকা হাইকেয়ার উত্তরা জেনারেল হাসপাতাল চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ইন্না-লিলাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন। মৃত্যুকালে স্ত্রী দুই ছেলে এক মেয়ে সহ অসংখ্য গুনাগ্রাহী রেখে গেছেন। শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য বরিশাল জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও বানারীপাড়া উপজেলার বিএনপির সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি এস, সরফুদ্দিন আহমেদ সান্টু, উজিরপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি আঃ মাজেদ তালুকদার মান্নান মাষ্টার, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন খান, উপজেলা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সহিদুল ইসলাম খাঁন, উপজেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি এস এম আলাউদ্দিন, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাদশা, শ্রমিক দলের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সহ বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। যানাজায় উপস্থিত হয়ে শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এস,এম জামাল হোসেন, বড়াকোঠা ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাড: শহিদুল ইসলাম সহ বিভিন্ন দলের রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা ও এলাকাবাসী। ২ জুলাই বৃহস্পত্তিবার সকাল ৯টায় জানাজা শেষে তার পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

ক্রাইম ডায়রি//জেলা

Total Page Visits: 66255

বাগেরহাটে যুবলীগ কর্মীর গোপনাঙ্গ কর্তন

শেখ সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট প্রতিনিধি :
বাগেরহাটের  মোরেলগঞ্জে রুবায়েত শিকদার(৩০) নামে এক যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম ও লিঙ্গ কেটে ফেলেছে  একদল দুর্বৃত্ত। খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন তাকে আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ০২ জুলাই, ২০২০ইং    বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে পঞ্চকরণ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সোনাখালী গ্রামের অজিয়ার শিকদারের ছেলে রুবায়েত ইউনিয়ন যুবলীগের কর্মী। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে দিনমজুর বজলু শেখের স্ত্রী রোজিনা বেগমকে(৩০) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।
এ ঘটনা সম্পর্কে রুবায়েতের স্ত্রী রেশমা বেগম ও চাচা অলিয়ার রহমান  বলেন, রাতে একটি সন্ত্রাসী চক্র পরিকল্পিতভাবে রুবায়েতকে ডেকে নিয়ে মুখ বেঁধে পিটিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার লিঙ্গ ও বাম পায়ের রগ কেটে ফেলেছে। কয়েকটি দাতও পড়ে গেছে।
এ বিষয়ে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মোজাম্মেল হক মোজাম বলেন, রুবায়েত দলের একজন সক্রিয় কর্মী। সকল কর্মসূচীতে তাকে পাওয়া যায়। স্থানীয় শত্রুতার কারনে পরিকল্পিতভাবে তার ওপর হামলা করা হয়েছে।

রাতে একটি সন্ত্রাসী চক্র পরিকল্পিতভাবে রুবায়েতকে ডেকে নিয়ে মুখ বেঁধে পিটিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।

এ বিষয়ে ঘটনাস্থল থেকে থানার এসআই দিপঙ্কর বলেন, রুবায়েতের লিঙ্গ কেটে বিচ্ছিন্ন করাসহ তার শরীরে অনেক কোপের চিহ্ন রয়েছে। বিচ্ছিন্ন লিঙ্গ পুলিশ উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় এক নারীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। অন্যান্য জড়িতদের আটকের জন্য রাত থেকেই এলাকায় পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

ক্রাইম ডায়রি/// জেলা// ক্রাইম
Total Page Visits: 66255