• শনিবার (রাত ১:০২)
    • ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সাংবাদিক আরিফুলকে আইনি সহায়তা দিবে “বিএমএসএফ”

ইমাম বিমান, ঝালকাঠি হতেঃ

সাংবাদিক নির্যাতন নতুন কিছু নয়। সত্যে কথা বললে কেউ কেউ রুষ্টভাবাপন্ন হয়ে সাংবাদিকদের একহাত দেখে নেয়ার চেষ্টা করেন।। প্রকৃত সাংবাদিকদের যখন সেই তালিকায় ফেলা হয় তখন সাংবাদিক সমাজ একত্রিত হয়ে প্রতিবাদ করবেন এটাই স্বাভাবিক। সম্প্রতি, কুড়িগ্রাম ডিসির রোশানলের শিকার সাংবাদিক আরিফুলকে আইনী সহায়তা দেবে ” বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ” বিএমএসএফ। ১৭ মার্চ মঙ্গলবার বিকেলে দেশের বৃহত্তম সাংবাদিক বান্ধব সংগঠন ” বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ” বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর এক তথ্য সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কুড়িগ্রামে ডিসি কান্ডে শারীরিক নির্যাতন ও কারাদন্ডের শিকার সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগ্যানকে আইনী সহায়তা দেবে বিএমএসএফ। ডিসি কান্ডের ভ্রাম্যমান আদালতের দেয়া অবৈধ কারাদন্ড, তাকে শারীরিক নির্যাতন, লাঞ্ছিত এবং ভয়ভীতি দেখানোর দৃষ্টান্তমূলক সঠিক বিচার পেতে বিএমএসএফ আরিফুলের পাশে থাকবে।
অপরদিকে দন্ডপ্রাপ্ত ও নির্যাতনের শিকার আরিফুলের সুচিকিৎসা, পারিবারিক নিরাপত্তা রক্ষার বিষয়টি নিয়েও বিএমএসএফ’র আইন উপদেষ্টা পরিষদ আদালতের নজরে আনবে। আরিফুলকে দেয়া ভ্রাম্যমান আদালতের কারাদন্ডের বিরুদ্ধে বিএমএসএফ আইনী লড়াই করে যাবে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ গভীর রাত আনুমানিক দেড়টার সময় কুড়িগ্রামের তৎকালীন দূর্ণীতিবাজ ডিসি সুলতানা পারভীনের নির্দেশে আরডিসি নিজাম উদ্দিনের নেতৃত্বে প্রায় অর্ধশতাধিকের একটি পেটোয়া বাহিনী সাংবাদিক আরিফুল ইসলামের বাসায় হানা দেয়। দরজায় গিয়ে পুলিশের লোক বলে খুলতে বললে না খোলায় লাথি মেরে ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে তাকে উপুর্যূপরি কিলঘুষি ও লাথি মেরে চোখ বেঁধে টেনেহিচড়ে মাইক্রোতে তুলে নেয়। এক পর্যায়ে ক্রসফায়ারের জন্যও উদ্যত হন তারা। এ সময় আরিফুলের আত্মচিৎকার এবং পা ধরে অণুনয় বিনয়ের পরে ডিসি অফিসে নিয়ে যান। সেখানে একটি রুমে নিয়ে তাকে উলঙ্গ করে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত ও ফুলা জখম করে ৪টি কাগজে স্বাক্ষর নেয়। ঐ দিন রাত ৩ টায় ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে তাকে এক বছরের কারাদন্ড প্রদান করেন। ঐ আদালতের রায়ে বলা হয়েছে আরিফুলের বাসায় আধা বোতল মদ ও এক’শ গ্রাম গাঁজা পাওয়া গেছে। এই অভিযোগে তাকে এক বছরের কারাদন্ডাদেশ প্রদান করা হয়।

এদিকে ডিসিকান্ডের ঘটনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামসহ সারাদেশের সাংবাদিক সমাজ প্রতিবাদে ফেটে পড়েন। এ ঘটনায় বিএমএসএফ’র ডাকে গত ১৬ মার্চ দেশব্যাপী প্রায় দুই শতাধিক জেলা উপজেলায় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ডিসিকান্ডের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে বিএমএসএফ’র আন্দোলন অব্যাহত রাখা হয়েছে।

জানাগেছে, ডিসি সুলতানা পারভীন কুড়িগ্রামে থাকাকালে নানা দূর্ণীতি-অনিয়ম চালিয়ে আসছিল। এমনকি তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করে ৪০ বছরের একটি ঐতিহ্যবাহি পুকুরের নাম পরিবর্তন করে নিজ নামে সুলতানা সরোবর নামকরন করেন। এ সকল দূর্ণীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে আরিফুল বিভিন্ন সময় তার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় তার ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ডিসি সুলতানা। ওই সংবাদ প্রকাশের জের ধরেই ওই দিন গভীর রাতে আরডিসি নিজামের নেতৃত্বে ৪০ জনের একটি টিম পাঠিয়ে ধরে এনে কারাদন্ড প্রদান করে ক্ষমতার দাপট দেখাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বিধিবাম! তা আর হলোনা!

বিষয়টি উচ্চ আদালতের নজরে আসায় আরিফুলের বক্তব্য শুনতে আগামি সোমবার হাইকোর্টে ডাকা হয়েছে। ইতিমধ্যে বেনামে জামিন আবেদন করে আরিফুলকে জামিনে বের করে দেয়া হয়েছে। জেল থেকে বেরিয়ে আরিফুল কুড়িগ্রাম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসারত অবস্থায় ডিসি সুলতানা আরিফুলকে ফোন করে বিষয়টি নিয়ে মিডিয়ার সামনে না আসারও অনুরোধ করে। গত দু’দিন ধরে ডিসি ও আরিফুলের কথোপকথন ভাইরাল হয়ে গেছে।

ক্রাইম ডায়রি///জাতীয়

Total Page Visits: 66593