• বৃহস্পতিবার (রাত ১:২২)
    • ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

স্বার্থই যেখানে সবঃ অন্ধভাবনা হতে বের হওয়ার এখনই সময়

মিয়া মোহাম্মদ হেলাল, ক্রাইম ডায়রির   বিশেষ প্রতিনিধি, লন্ডন  হতেঃ

“মুসলিম,ইসলাম ও কুরআন ” যেন ধর্ম নিয়ে ব্যবসার মূল পুঁজি হয়ে দাড়িয়েছে। মুসলিম হোক,হিন্দু হোক,খ্রিস্টান হোক,বৌদ্ধ হোক কিংবা যে কোন ধর্মীয় দল হোক সবাই মৌলবাদের দোহাই দিয়ে নিজ ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করতে চায়।। বাংলাদেশের মত উন্নয়নশীল দেশে লালসালুর ব্যবসা কিংবা রাজনৈতিক ব্যবসা সবই ধর্মকে কাজে লাাগিয়ে। তাই এখন গণমানুষকে জাগতে হবে।ধর্ম ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটকে না বলার এখনই সময়। ভেবে দেখুন,

“ভারতের গুজরাটের Sabarmati Express নামক ট্রেনে (২৭ ফেব্রুয়ারী ২০০২) অজ্ঞাতদের হামলা ও অগ্নি সংযোগে মারা যায় ২৫৪ জন ভারতীয়। এ ঘটনায় কোন প্রমাণ ছাড়াই মুসলমানদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়। অথচ পরবর্তীতে ‘নতুন নানাভাতি’ তদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতে বেরিয়ে আসে যে, ভারতের মুসলমানদের উপর হামলা চালানোর পূর্ব-ষড়যন্ত্র হিসেবেই গুজরাটের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী, উগ্র সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাবাজ নেতার নির্দেশেই উগ্রবাদী হিন্দু সন্ত্রাসী ট্রেনে হামলা করেছিল। যেটাকে ইস্যু করে মাস খানেক ধরে সাম্প্রদায়িক RSS সহ উগ্র হিন্দুরা মুসলিমদের উপর হামলা চালায়। শুরু হয় দাঙ্গা। সংখ্যালঘু হওয়াতে পাকিস্তানি হায়েনাদের মত সাম্প্রদায়িক মোদির সমর্থক উগ্র হিন্দু সন্ত্রাসীরা সকল বর্বরতাকে হার মানিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে মুসলিমদের উপর। হত্যা করে প্রায় ৫০০০ মুসলমানকে। ধর্ষণ ও খুন করে ৪০০ মুসলিম মহিলাকে। ভেঙে গুড়িয়ে দেয় ৫৬৩ টি মসজিদ। পুড়িয়ে দেয মুসলমানদের বাড়ি ঘর ব্যসায়িক প্রতিষ্ঠান। যে দাঙ্গায় গৃহহীন হতে হয় আড়াই লক্ষ মুসলমানকে। সেই দাঙ্গার প্রধান নায়ক মোদি যখন ২০১৪ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলো তখন বাংলাদেশে অবস্থিত ভারতীয় হাইকমিশনে মিষ্টি ও ফুল নিয়ে সবার আগে গিয়েছিল তার মত আরেক আরেক সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাবাজ মওদুদীর হাতের গড়া সংগঠন জামাতে ইসলাম ও তাদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক, সামরিক ছাউনি থেকে জন্ম নেয়া বাংলাদেশের রাজনীতির বিনোদন, মৌলবাদীদের ধারক বাহক বিএনপি।

মুজিব শতবর্ষের অনুষ্ঠানে ভারতীয় প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আসার কথা ছিল। সেটাকে মেনে নিতে পারেনি ভারতীয় চুলকানি রোগে আক্রান্ত বিএনপি, জামাত, হেফাজত তথা বাংপাকিদের উত্তরসূরি, আওয়ামীলীগের নব্য হাইব্রিড কাউয়ারা। সেই সুযোগটিও তাদের হাতে চলে এলো। সাম্প্রতিক NRC ও CAA ইস্যুতে দিল্লীর মুসলমানদের উপর সরকারী পৃষ্টপোষকতায় বিজেপির হামলার পর অসাম্প্রদায়িক বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে মোদিকে সাম্প্রদায়িক উল্লেখ করে আগমনের প্রতিবাদ করে আরেক উগ্র সাম্প্রদায়িক হেফাজত ও তাদের কাঁধে ভর করে বসে থাকা স্বাধীনতা বিরোধ মৌ-লোভী গোষ্ঠী। ব্যক্তি মোদিকে আমি কখনোই পছন্দ করি না। শুধু মোদি কেন, কোন ব্যক্তি বা দল ধর্মকে রাজনৈতিক ব্যবসার পুঁজি বানিয়ে ক্ষমতার সিঁড়ি তৈরী কারীকে আমি পছন্দ করি না।

ভারত আমাদের বন্ধু রাষ্ট্র। কারণ ওদের প্রত্যক্ষ পরোক্ষ সহযোগিতায় (অর্থ, অস্ত্র, ভারতীয় সৈনিকদের রক্ত) মাত্র নয় মাসের মাথায় পেয়েছি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। তাইতো ভারত নিয়ে বাংপাকি ও তাদের উত্তরসূরিদের এত গাত্রদাহ। ভারতে কিছু হলেই হিন্দু মুসলিম চেতনা নিয়ে মুসলিম মুসলিম ভাই ভাই বলে কোমরে কাপড় বেঁধে মাঠে নেমে পড়ে। আবার সুযোগ পেলে ক্ষমতার জন্য মোদিকে আব্বা ডাকতেও দ্বিধা করে না। আসলে ওদের কাছে মুসলমান বিষয় না। যদি মুসলমান বিষয় হতো তাহলে সৌদি আরব কর্তৃক ইয়েমেন, তুরস্ক কর্তৃক সিরিয়ায়, চীন কর্তৃক উইঘর, পাকিস্তান কর্তৃক বেলুচিস্তানের মুসলমান হত্যা, ধর্ষণ, বলাৎকারের প্রতিবাদ করতো।

দিল্লীর মুসলমান নয় ভারত বিরোধিতা ছিল বাংপাকি ও তাদের উত্তরসূরিদের মুখ্য উদ্দেশ্য। পরিকল্পনা ছিল হিন্দু মুসলিম হিস্যু বানিয়ে ৫ই মে’র মত মাঠে নেমে মুজিব শতবর্ষের অনুষ্ঠান বানচাল করবে। কিন্তু দুর্ভাগ্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশ্ব পরিস্থিতিতে অথিতি বৃন্দের আগমন ও দেশের জনগনের কথা চিন্তা করে মুজিব বর্ষের অনুষ্ঠান স্থগিত ঘোষণা করায় তাদের সেই পরিকল্পনায় যে ভেস্তে গেছে, তা প্রধানমন্ত্রীর স্থগিত ঘোষণার পর বাংপাকি নেতারা করোনা ভাইরাস নিয়ে তাদের বক্তব্যে স্পষ্টত ফুটিয়ে তুলতেছে। আর ছাগুদের আস্ফালন দেখে মনে হচ্ছে করোনা নয়, তাদের প্রতিবাদে মোদির সফর বাতিল হয়েছে।

রাষ্টের কূটনীতি যে ধর্মের ভিত্তিতে চলে না আমাদের ছাগু সমাজ জানে না। কূটনৈতিক সম্পর্কে হিন্দু মুসলিম বলে কোন কথা নাই। ওহে ধর্ম ব্যবসায়ী ছাগু সমাজ, তুরস্কের এরদোগান কিংবা সৌদি আরবের যুবরাজ কিংবা ছাগুস্তানের নিয়াজির ভাতিজা ইমরান খান যদি বাংলাদেশে আসে তাহলে কি বলতে পারবে মুসলমানদের হত্যাকারী হিসেবে বাংলাদেশ ঢুকতে দেব না ?”

ভাবুন,দেশ-ধর্ম  নাকি ধর্ম নিয়ে ব্যবসা কাদের সমর্থন করবেন।

***মিয়া মোহাম্মদ হেলাল

(লেখক, যুক্তরাজ্য প্রবাসী-মুক্তচিন্তার মূর্তপ্রতীক,দেশপ্রেমিক, আওয়ামী অনলাইন এক্টিভিস্ট, আওয়ামীলীগ গবেষক,  বঙ্গবন্ধু ও শেখহাসিনার  সূর্য সৈনিক,বাংলা ডায়রি মিডিয়া লিঃ এর উপদেষ্টা ।।।)

Total Page Visits: 66419