• শনিবার (রাত ১২:৪৬)
    • ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

করোনা নিয়ে অনলাইনে অপপ্রচারঃঃ সিটিসি’র হাতে গ্রেফতার ০৫

ক্রাইম ডায়রি অনলাইন ডেস্কঃ

আতংক ও একটি মহামারী রোগ। এটা সময় মতে ছড়াতে পারলে প্রকৃত ঘটনার চেয়েও দ্রুত গতিতে এ রোগে আক্রান্ত হয় মানুষ।   যে কারনে গুজব বা আতংক প্রতিরোধে বরাবরই সোচ্চার বাংলাদেশ পুলিশের সাইবার সিকিউরিটি টিম সিটিসি।।। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নভেল করোনা ভাইরাস নিয়ে গুজব ছড়ানোয় ৫ জনকে হেফাজতে নিয়েছে তারা। সিটিসি সুত্রে জানা গেছে,   ” করোনাভাইরাস বাংলাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে, এতে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশের দুইজন মারা গেছেন।” বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ ও নিউজ পোর্টালের মাধ্যমে এই গুজব ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে পাঁচজনকে হেফাজতে নিয়েছে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগের পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগের কার্যালয়ে আনা হয়েছে। দৈনিক খবর, টুইটবাংলা ডটকম, অন্য আলো, শেখ রানা (ফেসবুক আইডি), এম এ হাসনাত জামিল (ফেসবুক আইডি) সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হয়েছে।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে কেউ আক্রান্ত হয়েছে বা মারা গেছে এমন কোনো অথেনটিক খবর পাওয়া যায়নি। বাংলাদেশ সরকার এবং এ দেশের জনগণ অত্যন্ত দায়িত্বশীলভাবেই এ ভাইরাসের সংক্রমণ বা বিস্তার রোধে কাজ করছে।

অনেকেই এ বিষয়ে অতি উৎসাহী হয়ে প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। যারাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা অনলাইন নিউজ পোর্টালের মাধ্যমে এ ধরনের খবর প্রচার করবে তাদের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আওতায় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে সিটিসি।

ক্রাইম ডায়রি///ক্রাইম///আইন শৃঙ্খলা

Total Page Visits: 66591

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযানঃ বিজয়নগরে তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতারঃ মাদকদ্রব্য উদ্ধার

রতন পারভেজ, ব্রাহ্মনবাড়িয়া সংবাদদাতাঃ

ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলার   বিজয়নগরে তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীদের বাড়িতে সাড়াঁশি অভিযান চালিয়েছে মাদকদ্রব্য  নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের স্থানীয় অফিসের একটি চৌকস টিম। এ সময়  ১৪১ পিস ইয়াবা, ৯৯ বোতল এসকাফ এবং ০২ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ বাচ্চু ও গোলাপ নামের দু’জন তালিকাভুক্ত মাদকবাজকে গ্রেফতার করা হয়।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সুত্রে জানা গেছে, বিজয়নগর উপজেলার তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সাড়াঁশি অভিযান পরিচালনা করা হয়।এসময় সিংগারবিল উথারিয়া পাড়া এলাকা থেকে ১৪১ (একশত একচল্লিশ) পিস ইয়াবাসহ আসামী মোঃ বাচ্চু মিয়া (৩২) ও তালিকাভুক্ত ফেন্সিডিল ব্যবসায়ী ও একাধিক মামলার আসামী মোঃ গোলাপ মিয়া (৫০) এর বসতবাড়ি ঘেরাও করে আটক করা হয়।    পরিস্থিতি আঁচ করতে পেরে  মোঃ গোলাপ মিয়া(৫০) পালিয়ে যেতে সমর্থ হয়। পরে বসতঘর তল্লাশি করে গোসলখানা থেকে লুকানো অবস্থায় ৯৯ (নিরানব্বই) বোতল কোডিন মিশ্রিত নিষিদ্ধ এসকাফ সিরাপ জব্দ করা হয়।পরে একই এলাকায় অভিযান চালিয়ে তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী এবং একাধিক মামলার আসামী মোঃ শাহ পরান (৩২)কে আটক করা হয়।

পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তার বসতঘরের মধ্যে বিশেষ কৌশলে লুকোনো অবস্থায় ০২(দুই) কেজি গাঁজা জব্দ করা হয়। রাতভর তালিকাভুক্ত আসামীদের বাড়িতে সাড়াঁশি অভিযান পরিচালনা শেষে আসামীদের বিজয়নগর থানায় গ্রেপ্তারকৃত ০২ জন এবং পলাতক ০১জন আসামীর বিরুদ্ধে ০২টি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়।

তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে ক্রাইম ডায়রিকে জানিয়েছেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলা কার্যালয়।

ক্রাইম ডায়রি///ক্রাইম//আইন শৃঙ্খলা

Total Page Visits: 66591