• শুক্রবার ( সকাল ৮:০৪ )
    • ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

চৌকস পুলিশ অফিসার সালেহ ইমরান কর্তৃক বাড়ির মালিক অপহরনকারী টাকাসহ গ্রেফতার

ক্রাইম ডায়রি ডেস্কঃ

বাড়ির মালিক কে অপহরণ পূর্বক ১০ লাখ টাকা নিয়ে উধাও  হয়ে যেতে চেয়েছিল ভাড়াটিয়া। কিন্তুু বাঁধ সাধল পুলিশের চৌকস অফিসার পিবি আই কর্মকর্তা সালেহ ইমরান। ঘটনাসুত্রে জানা যায়,    ভাড়াটিয়া কর্তৃক অপহৃত হলে ভিকটিমের পরিবার আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করে, পরে বাদীপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে থানা থেকে মামলা পিবিআই এ হস্তান্তর করা হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় অধিক সফলতা ও দেশপ্রেমিক পুুুুলিশ অফিসার হিসেবে আলোচিত এস আই  সালেহ ইমরান। মামলা আসার ৪ দিনের মধ্যে নওগাঁ  থেকে মুল আসামী মোহনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন এই কর্মকর্তা।   গ্রেফতারের পর ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তার দেওয়া স্বীকারোক্তি মোতাবেক নগদ ৫ লাখ টাকা এবং উক্ত টাকা দিয়ে কেনা ২ লাখ টাকার মোটরসাইকেল এবং বিকাশের মাধ্যমে বাদীকে দেয়া ৯০ হাজার টাকা সহ প্রায় ৮ লাখ টাকা উদ্ধার করেন  তিনি।

পি বি আইয়ের এই সফল জনবান্ধব কর্মকর্তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন আশুলিয়ার সর্বস্তরের জনগন।

ক্রাইম ডায়রি//আইন শৃঙ্খলা

12675total visits,174visits today

প্রাকৃতিক পরিবেশ ঠিক রেখে গ্রামগুলোকে ঢেলে সাজাতে হবে–বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা

ক্রাইম ডায়রি ডেস্কঃ

গ্রামবান্ধব সরকার প্রধান বঙ্গকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,  বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে হলে সব ধরনের নাগরিক সুযোগ- সুবিধা নিশ্চিতের পাশাপাশি জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের মাধ্যমে সব গ্রামকে পরিকল্পিতভাবে সাজাতে তার সরকার কাজ করে যাচ্ছে। ২৮ শে আগষ্ট   বুধবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি কমপ্লেক্স সংলগ্ন ‘জমি অধিগ্রহণ ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ পরিকল্পনা’ শীর্ষক উপস্থাপনা প্রত্যক্ষকালে এ কথা বলেন।

এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কেবল উপজেলা পর্যায়ে নয় ইউনিয়ন, ওয়ার্ড এমন কী সব গ্রামে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে তার সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

কৃষি নির্ভর বাংলাদেশে কৃষি উন্নয়নেেের  মাধ্যমেই পুরো দেশকে অতি দ্রুত এগিয়ে নিয়ে যাবার যে ভিশন তা  বাস্তবায়নে  আবাদি জমি রক্ষার কথা মাথায় রেখে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, মাশরাফী বিন মর্ত্তুজা, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান, টুঙ্গিপাড়া পৌরসভা মেয়র, টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদের পাঁচজন চেয়ারম্যান, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় সরকারি প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) ৩৯৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ‘ভূমি অধিগ্রহণ ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ পরিকল্পনা’ শীর্ষক চার বছর মেয়াদি প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে রাজধানীতে তার কার্যালয়ে প্রকল্পটি উপস্থাপন করা হয়।

এলজিইডি’র প্রধান প্রকৌশলী মো. খলিলুর রহমান প্রকল্পটি উপস্থাপনা করেন।

দেশব্যাপী ৩৪৬৫ দশমিক ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে যে চলমান ‘জরুরি নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প (২য় পর্যায়)’ চলছে, তার একটি অংশ হিসেবে প্রকল্পটি গ্রহণ করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশব্যাপী ২৮১টি মিউনিসিপ্যালিটিতে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে।

প্রকল্পটির আওতায় সড়ক উন্নয়ন, সেতু, কালভার্ট ও ড্রেন নির্মাণ, ভূমি অধিগ্রহণ ও পুনর্বাসন, জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ, খাল খনন, নদী তীর পুনর্নির্মাণ, পুকুর/খাল/বিল সংস্কার, সৌন্দর্যবর্ধন, বৃক্ষ রোপণ এবং অন্যান্য অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি সড়কের পাশে বাতি স্থাপন করা হবে।এ উন্নয়ন কার্যক্রমগুলোর মধ্যে রয়েছে শেখ রাসেল শিশুপার্ক (সম্পন্ন), টুঙ্গিপাড়া-পাটগাতি খালের সৌন্দর্যবর্ধন (সম্পন্ন), টুঙ্গিপাড়া উপজেলা কমপ্লেক্সের পুকুরগুলোর সৌন্দর্যবর্ধন (সম্পন্ন), পাটগাতি কাঁচাবাজার (নির্মাণাধীন), টুঙ্গিপাড়া কাঁচাবাজার (সম্পন্ন) এবং প্রস্তাবিত বহুতল ভবনের নির্মাণকাজ, গোরস্থানের অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন, শেখ রাসেল শিশু পার্কের বিপরীত পার্শ্বে টুঙ্গিপাড়া বাজার মসজিদের পুনর্নির্মাণ (প্রস্তাবিত) এবং টুঙ্গিপাড়া নতুন বাসস্ট্যান্ড নির্মাণাধীন।

ক্রাইম ডায়রি//জাতীয়//সুত্রঃঃ বাসস

12675total visits,174visits today