• বুধবার ( সকাল ৬:৫৬ )
    • ২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

বার্ষিক কর্ম সম্পাদনে বিদ্যুৎ বিভাগ প্রথমঃ একই মন্ত্রণালয়ের জ্বালানি বিভাগ তৃতীয়স্থানে

আতিকুল্লাহ আরেফিন রাসেলঃ

শনিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বার্ষিক কর্ম সম্পাদন চুক্তি অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে গত এক বছরের কাজের মূল্যায়নের ভিত্তিতে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ   মন্ত্রণালয়ের বিদ্যুৎ বিভাগ প্রথম হয়েছে। তৃতীয় হয়েছে একই মন্ত্রণালয়ের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ। অর্থাৎ এক থেকে তিন নাম্বারের মধ্যে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ     মন্ত্রণালয়েরই দুটি বিভাগ রয়েছে।
মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বিদ্যুৎ বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. আহমদ কায়কাউস এবং জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিভাগের সচিব আবু হেনা মোঃ রহমাতুল মুনিম উপস্থিত থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন। এতে উচ্ছসিত হয়ে বিদ্যুৎ বিভাগের সিনিয়র সচিব এবং অন্যান্য শীর্ষ কর্মকর্তারা রোববার বিদ্যুৎ জ্বালানি খনিজ সম্পদ  মন্ত্রণালয়ের মাননীয়  প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ   এর সাথে সাক্ষাৎ করেছেন ।

 

এ সময় মন্ত্রী  আগামী দিনগুলোতে জনগণকে নিরবচ্ছিন্নভাবে সেবা দিতে সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি সকলে মিলে টিম ওয়ার্ক করে কাজ করা সহ মানুষ বিদ্যুৎ পাচ্ছে কিন্তু একটু বাধাগ্রস্থ হলেই বিরক্ত না  হওয়া, আগামীতে যেন এমন অবস্থা তৈরী না হয় সেজন্য বিদ্যুৎ বিভাগের সকলের প্রতি আহবান জানান।

এ সময় জনাব নসরুল হামিদ আরও বলেন, বর্তমানে ৯৩ শতাংশ মানুষ বিদ্যুৎ পাচ্ছেন। আমরা দ্রুত শতভাগ মানুষের কাছে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছে দিতে কাজ করে যাচ্ছি।

অসাধারণ এই অর্জন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিভাগের সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের। যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে বাংলাদেশকে আলোর পথে এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি সবাইকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দেশের স্বার্থে একযোগে কাজ করার আহবান জানান ।

ক্রাইম ডায়রি//জাতীয়

Total Page Visits: 17099

টোকিও ফুড (কারখানা) ও বনফুল এন্ড কোং কে জরিমানা

নোয়াখালী অফিসঃঃ

 

টোকিও ফুড (কারখানা) ও বনফুল এন্ড কোং কে জরিমানা করেছে নোয়াখালী জেলা প্রশাসনের  ভ্রাম্যমাণ আদালত ।  জেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে ,  নোয়াখালী জেলার সদর উপজেলায় অভিযান চালিয়ে টোকিও ফুড (কারখানা) ও বনফুল এন্ড কোং কে ৪৫হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। রবিবার (১৪জুলাই) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: রোকনুজ্জামান খানের (Ruknuzzaman Khan Rukon) নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে সহযোগিতা করেন সহকারী পরিচালক দেবানন্দ সিনহা, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কার্যালয়, নোয়াখালী এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন সুধারাম মডেল থানা পুলিশ।

ফেইসবুকে অভিযোগ ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নোয়াখালী জেলার সদর উপজেলার পুরাতন কলেজ এলাকায় স্থাপিত টোকিও ফুড কারখানায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনায় সময় দেখা যায়- খাবার তৈরির পরিবেশ স্যাত স্যাতে (ভেজা ফ্লোর)। এ অপরাধে টোকিও ফুড কারখানাকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫৩ধারায় ১০হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই সাথে কারখানার বর্জ্র ব্যবস্থাপনার বিষয়ে স্থানীয় জনসাধারণের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তা পরিদর্শন করার সময় দেখা যায়- কারখানার বর্জ্র থেকে দুর্গন্ধ ছাড়াচ্ছে। বর্জ্র ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়ন ও পরিবেশ বান্ধব করার জন্য ১মাসের সময় বেঁধে দেওয়া হয়।

নোয়াখালী জেলা শহরে স্থাপিত গণপূর্ত ভবনের বিপরীত পার্শ্বে বনফুল এন্ড কোং এ অভিযান চালিয়ে দেখা যায়- পণ্যের গায়ে মূল্য লেখা নেই, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিপণনের উদ্দেশ্যে প্রদর্শন, ফ্রিজে কাজা-পাকা খাবারের মিশ্রণ, কিচেনে স্যাতে স্যাতে মেঝে, বর্জ্র নিষ্কাশনের কোন ব্যবস্থা নেই । এ অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৩ধারায় ৩৫হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে , জনস্বার্থে এ ধরনের      অভিযান অব্যহত থাকবে ।

ক্রাইম ডায়রি///আদালত

Total Page Visits: 17099