• শনিবার ( রাত ১১:০২ )
    • ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

ঘটনাস্থল খুলনাঃ Safe N Save আসলে কতটুকু safe?

এস এম চন্দন, বিশেষ প্রতিনিধি, খুলনা হতেঃ

……………………………………..
আজ বিকাল ৫ টায় খুলনার নিউ মার্কেট এলাকার “সেইফ এন সেইভ” চেইন শপকে বিভিন্ন অনিয়মে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসক, খুলনা মোহাম্মদ হেলাল হোসেন এর নির্দেশনায় বাজার মনিটরিং ও স্বাস্থ্যসম্মত খাবার দেওয়ার নিশ্চায়তায় এ অভিযান পরিচালিত হয়।
সাধারণ মানুষ তথা ক্রেতা সেজে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মিজানুর রহমান বিভিন্ন পণ্য দেখেন ও কেনার জন্য তা রাখেন। এ সময় তার চোখে নানা অনিয়ম ধরা পড়ে।
সরকার নির্ধারিত মূল্য না মেনে গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৭০০ টাকায়। কাঁচা সবজি প্রায় সবগুলো চড়া দামে বিক্রি করছে এ প্রতিষ্ঠান।
এছাড়া কসমেটিকস থেকে শুরু করে বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের গায়ে মেয়াদ উত্তীর্ণর তারিখ পাওয়া যায় নি।
৩য় তলায় মিষ্টি জাতীয় পণ্য তৈরি কিভাবে করে এই প্রতিষ্ঠান তা সরেজমিনে দেখতে গিয়ে চোখে পড়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। এমনকি বিড়ালের অবাধ যাতায়াত ও নোংরা ওয়াশ রুম চোখে পড়ে।
এছাড়া বিভিন্ন জিনিস কিনতে আসা ভোক্তাসাধারণ তাৎক্ষণিকভাবে নানা অভিযোগ করেন এ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে।
সব অনিয়ম ও আইন অমান্য করার অপরাধে প্রতিষ্ঠানটিকে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
ভবিষ্যতে এমন অনিয়ম করবে না বলে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়।
অভিযানে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন অংশ নেয়।

ক্রাইম ডায়রি//ক্রাইম

6909total visits,235visits today

কেন এত দাম খেজুরের ????

হোসেন মিন্টু ও জুয়েল মাঝি, চট্টগ্রাম অফিসঃ

রমজানকে সামনে রেখে রেকর্ড পরিমাণ খেজুর আসার পরও নাগালের বাইরে আছে দাম। রোজার আগের ছয় মাসে চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে ২৩৪ কোটি টাকায় ৩৫ হাজার ৪০৯ টন শুকনো ও ভেজা খেজুর আনেন ৮০ ব্যবসায়ী। শুল্ক্ক দেওয়ার পর প্রতি কেজির দাম পড়ে ৬৭ টাকা। অথচ বাজারে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে দেড় হাজার টাকা পর্যন্ত। এ হিসাবে আমদানি মূল্যের চেয়ে ১৫ থেকে ২০ গুণ বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি খেজুর।

আমদানির চিত্র পর্যালোচনায় দেখা যায়, আমদানি করা মোট খেজুরের ৭০ শতাংশই ২৫ ব্যবসায়ীর কাছে। ফলে সিন্ডিকেট করে তারা বাজার নিয়ন্ত্রণ করছেন। এভাবে তারা তুলে নিচ্ছেন মাত্রাতিরিক্ত মুনাফা।

গেল বছরের অক্টোবর থেকে গত মার্চ পর্যন্ত আমদানি চিত্র পর্যালোচনায় দেখা যায়, রমজানকে ঘিরে এবার পর্যাপ্ত খেজুর আমদানি হয়েছে দেশে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি এসেছে ভেজা খেজুর। দুই ধরনের প্যাকেটে খেজুর এসেছে। একটি সর্বোচ্চ আড়াই কেজির প্যাকেট। আরেকটি আড়াই কেজির ওপরের প্যাকেট। কিছু ব্যবসায়ী শুকনো ও ভেজা উভয় খেজুর আমদানি করেছেন। তবে সর্বোচ্চ আড়াই কেজির প্যাকেটে ভেজা খেজুর এনেছেন ১৫ ব্যবসায়ী। ১৫ কোটি ৯৭ লাখ টাকায় মোট ১ হাজার ৯৭১ টন খেজুর আনেন তারা। আবার আড়াই কেজির ওপরে ভেজা খেজুর এনেছেন ৬০ ব্যবসায়ী। ২১১ কোটি ৬৪ লাখ টাকায় তারা ৩২ হাজার ২৩০ টন খেজুর এনেছেন। আড়াই কেজির বড় প্যাকেটে শুকনো খেজুর এনেছেন ১৫ ব্যবসায়ী। ৫ কোটি ৯২ লাখ টাকায় তারা ১ হাজার ২০০ টন খেজুর এনেছেন। সব মিলিয়ে রমজানকে সামনে রেখে এবার ২৩৪ কোটি টাকায় ৩৫ হাজার ৪০৯ টন খেজুর আমদানি হয়েছে। এসব খেজুর খালাসের আগে চট্টগ্রাম কাস্টমসকে শুল্ক্ক পরিশোধ করতে হয়েছে ৩ কোটি টাকা। এ হিসাবে শুল্ক্কসহ প্রতি কেজি খেজুরের দাম পড়েছে ৬৭ টাকা। অথচ বাজারে প্যাকেটজাত এসব খেজুর বিক্রি হচ্ছে ৮শ’ থেকে দেড় হাজার টাকায়।

সৌদি আরবের আজওয়া খেজুর প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৩০০ থেকে দেড় হাজার টাকা দরে। মেকজেল খেজুর কেজিপ্রতি ১ হাজার ৩০০ টাকা। ইরানের কামরাঙ্গা মরিয়ম ১০০০ টাকা, সাধারণ মরিয়ম ৮০০ টাকা, তিউনিসিয়ার প্যাকেটজাত খেজুর ৪৬০ টাকা, দাবাস ২২০ টাকা, ফরিদা ৩০০ টাকা, বড়ই ২২০ টাকা, নাগাল ২০০ টাকা ও বাংলা খেজুর ১০০ থেকে ১২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। এ হিসাবে প্রতি কেজি খেজুর আমদানি মূল্যের চেয়ে কমপক্ষে দুই গুণ ও সর্বোচ্চ ২০ গুণ দামে বিক্রি হচ্ছে বাজারে।

আমদানির তথ্য অনুযায়ী, সারাদেশে ৮০ ব্যবসায়ী খেজুর আমদানি করলেও দাম বাড়ানোর সিন্ডিকেটে রয়েছেন ২৫ জন। চাহিদার খেজুরের বেশিরভাগ এককভাবে আমদানি করে এখন বাজার নিয়ন্ত্রণ করছেন তারা। সর্বোচ্চ ৫ হাজার ৭০০ টন থেকে সর্বনিম্ন ১০০ টন খেজুর আমদানি করা প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে এরাবিয়ান ডেটস ফ্যাক্টরি, মেসার্স আরাফ এন্টারপ্রাইজ, আল্লাহর রহমত স্টোর, মদিনা ফ্রুটস লিমিটেড, রয়েল ফ্রেশ ফুডস, সাপোয়ানা ফুড ট্রেডিং করপোরেশন, রামিসা এন্টারপ্রাইজ, এডি ফ্রুটস লিমিটেড, হৃদয় এন্টারপ্রাইজ, সাউদার্ন ট্রেডিং, জেবি অ্যান্ড ব্রাদার্স, জেসপার ট্রেডিং, ওয়াসিফ ট্রেডিং, আল আনসার ফুডস, আস সাফা ওয়াল মারওয়া ট্রেডিং, ফারিয়া ট্রেডিং, মনসুর কোল্ড স্টোর, প্যারাগন এন্টারপ্রাইজ, হারুন স্টোর, শাকিল ফ্রেশ ফ্রুটস কোম্পানি, ট্রেড লিঙ্ক এজেন্সি, রিজভী ফ্রুটস, সবুজ এন্টারপ্রাইজ, সুপ্তি ট্রেডার্স ও লায়াম ফ্রেশ ফ্রুটস।

এ ব্যাপারে চিটাগং চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, রমজানে এবার তেল, চিনি, পেঁয়াজ, ছোলাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্যের দাম মোটামুটি স্থিতিশীল আছে। খেজুরের দাম কেন লাগামছাড়া, তা খতিয়ে দেখা উচিত। কিছু অসাধু ব্যবসায়ীর কারণে দেশের ১৬ কোটি মানুষ কষ্ট পাক, এটা আমরাও চাই না।
এদিকে খেজুরের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে মনিটরিং শুরু করে দিয়েছে যথাায

6909total visits,235visits today

বি এস টি আই ও নিরাপদ খাদ্যকর্তৃপক্ষের দুই কর্তাব্যক্তিকে হাইকোর্টের তলব

বি এস িট আইয়ের যথাযথ কর্তৃপক্ষ থাকলেও  বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নানা কর্তৃপক্ষ মাঝেমধ্যেই নানানভাবে বাজার মনিটরিং এর নামে ব্যবসায়ীদের হেনস্থা করেন এমন অভিযোগ বিস্তর। তবুও দায়িত্বতো বি এস টি আইয়ের । তবে তারা দায়িত্ব পালন করছেন না,নাকি পরিবেশ পাচ্ছেননা, নাকি সিস্টেমের শিকার???? এবার, বাজারে বিভিন্ন নামি-দামি প্রতিষ্ঠানের ভেজাল ও নিম্নমানের পণ্য থাকায় তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্ট। আদালত এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে পণ্যের মান নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসটিআই ও নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের একজন করে প্রতিনিধিকে তলব করেছেন। উপপরিচালকের নিচে নয়—এমন পদমর্যাদার দুই কর্মকর্তাকে আগামী রবিবার আদালতে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় প্রমাণিত হওয়ার পরও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ভেজাল ও নিম্নমানের ৫২টি পণ্য বাজার থেকে প্রত্যাহার এবং নতুন করে উৎপাদন বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে করা রিট আবেদনের ওপর ওই দিন আদেশের জন্য ধার্য করা হয়েছে। বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন। ভোক্তা অধিকার সংস্থা ‘কনসাস কনজ্যুমার্স সোসাইটি’র (সিসিএস) নির্বাহী পরিচালক পলাশ মাহমুদের করা এক রিট আবেদনে এ আদেশ দেওয়া হয়।

রিট আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার শিহাব উদ্দিন খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোখলেসুর রহমান। ভেজাল ও নিম্নমানের ৫২টি পণ্য বাজার থেকে প্রত্যাহার না করায় বিএসটিআইয়ের দায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের ভূমিকা এবং ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের দায়দায়িত্ব নিয়েও প্রশ্ন তোলেন  আদালত। উচ্চ আদালত বলেন, ‘তারা বড় বড় অফিস নিয়ে বসে আছে। তাদের কাজটা কী? তারা দায়িত্ব পালন করতে না পারলে অফিস ছেড়ে দিক।’ আদালত আরো বলেন, ‘বিএসটিআই একটি বিশেষ সরকারি প্রতিষ্ঠান। সেই প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষায় ভেজাল ও নিম্নমানের পণ্য ধরা পড়ল। এরপর শুধু শোকজ করেই তাদের দায়িত্ব শেষ? তাদের ওই সব পণ্য বাজার থেকে তুলে নেওয়ার প্রয়োজন ছিল।’

আদালত ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘ভোক্তা অধিকার আইন আছে। আইনে তাদের সব দেখার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তারা কী করছে? তারা কাজ করতে না পারলে অফিস ছেড়ে দিক। আমরা কেন এসব দেখতে যাব।’ উচ্চ আদালত বলেন, ‘প্রতি সপ্তাহে একটি করে জনস্বার্থমূলক বিষয় আমাদের সামনে আসছে।’ এসব বিষয়ে সরকারের বিভিন্ন সংস্থার কর্মকাণ্ড নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে আদালত বলেন, ‘আমরা মানুষের অন্য মামলা করব না এগুলো দেখব? এগুলো তো সরকারের কাজ। এগুলো দেখার দায়িত্ব সরকারের। আদালতের কাজ নয়। কিন্তু বিষয়গুলো এত গুরুত্বপূর্ণ যে এগুলো আমাদের সামনে এলে আমরা তো ফেলে দিতে পারি না। এসব দেখে কি আমরা বসে থাকব? তা হয় না।’ আদালত উষ্মা প্রকাশ করে বলেন, ‘এসব আমরা দেখলে আমাদের সমালোচনা করা হয়।’

আদালত বলেন, রোজা এলেই বিএসটিআই পণ্যের মান পরীক্ষা করে। ভেজালবিরোধী অভিযানে নামে। রোজার সঙ্গে এর সম্পর্ক কী? তারা (বিএসটিআই) অন্য সময় কী করে?  বিএসটিআইয়ের চিহ্নিত ৫২টি পণ্যের তালিকা দেখে আদালত বলেন, এসব পণ্য বাজারে আছে কি না তা তাদের (বিএসটিআই) কাছ থেকে জানা দরকার। আদালত বলেন, ‘এখানে রূপচাঁদা, প্রাণ কম্পানির পণ্য দেখছি। যেসব পণ্যের তালিকা দেখছি তাতো ঘরে ঘরে মানুষ সচরাচর ব্যবহার করছে। কোনো কম্পানিই তো বাদ নেই। অনেক বড় বড় কম্পানির পণ্য বিদেশ রপ্তানি হয়। আমাদের গর্বে বুক ভরে যায়। অথচ তাদের পণ্য নিম্নমানের, ভেজাল? এ কি অবস্থা!’  খাদ্যে ভেজাল রোধে বিশেষ ক্ষমতা আইনের কথা তুলে ধরে আদালত রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীকে উদ্দেশ করে বলেন, এ আইনে খাদ্যে ভেজালের জন্য সর্বোচ্চ শাস্তির (মৃত্যুদণ্ড) বিধান রয়েছে। তার পরও ভেজাল থেমে নেই। কেন ভেজালকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয় না?

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ভেজাল ও নিম্নমানের পণ্যের বিষয়ে ক্রাইম ডায়রিসহ বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এসব প্রতিবেদন যুক্ত করে গত বুধবার হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়। রিট আবেদন করার আগে খাদ্য ও বাণিজ্যসচিব, বিএসটিআই মহাপরিচালক, নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে আইনি নোটিশ দেওয়া হয়। নোটিশের জবাব না পেয়ে রিট আবেদন করা হয়। গতকাল এই রিট আবেদন শুনানির জন্য আদালতে উপস্থাপন করে আইনজীবী বলেন, ভয়াবহ অবস্থা। মানুষ অসহায়। এসব পণ্য খেয়ে তো মানুষ মারা যাবে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হবে শিশুদের। যাদের দেখার দায়িত্ব তারা হাত-পা গুটিয়ে বসে আছে। বিএসটিআই শোকজ করেই চুপ। এদিকে বিএসটিআই ও নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তরের কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন হাইকোর্টের পৃথক একটি বেঞ্চ। বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের হাইকোর্ট বেঞ্চ খাদ্যে ভেজাল রোধে বিএসটিআই ও নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তরের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে তাদের কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চান। আদালত আগামী ২৪ জুন পরবর্তী শুনানি ও আদেশের দিন নির্ধারণ করে এর মধ্যে সরকারি ওই দুটি প্রতিষ্ঠানের কর্মপরিধি, দুটি সংস্থার কাজের সমন্বয় কিভাবে হয় তা এবং তাদের দায়দায়িত্ব সম্পর্কে লিখিতভাবে জানাতে নির্দেশ দেন। তবে সাধারন মানুষের দৃষ্ঠিভঙ্গি বি এস টি আইয়ের প্রতি যথেষ্ঠ পজিটিভ। সাধারন ব্যবসায়ীরা অন্যন্য প্রতিষ্ঠানের তুলণায়  িব এস টি আই কর্মকর্তাদের সহযোগী মনোভাবের প্রশংসা করেন।

ক্রাইম ডায়রি///ক্রাইম//// আইনশৃংখলা//জাতীয়

6909total visits,235visits today

সারাদেশে দুদকের অভিযানঃ জাকাত ফান্ডের টাকা লোপাট

আতিকুল্লাহ আরেফিন রাসেলঃ

জাকাত ফান্ড এবং মসজিদের ইমামদের জমা দেওয়া টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইসলামিক ফাউন্ডেশন, নারায়ণগঞ্জে অভিযান পরিচালনা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন- ১০৬) আসা অভিযোগ আমলে নিয়ে এ অভিযান পরিচালিত হয়। দুদকের উপপরিচালক প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য ক্রাইম ডায়রিকে জানান, নারায়ণগঞ্জ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক মহিউদ্দিন জেলার জাকাত ফান্ড এবং প্রত্যেক মসজিদে কুরআন শিক্ষা প্রোগ্রামের টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ আসে। এ প্রেক্ষিতে দুদক, সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ঢাকা-২ এর একটি এনফোর্সমেন্ট টিম বৃহস্পতিবার (০৯ মে) অভিযান পরিচালনা করে।

দুদক টিম সরেজমিন অভিযানে প্রাপ্ত তথ্যাবলি পর্যালোচনায় জানতে পারে, উল্লিখিত সহকারী পরিচালক জাকাত ফান্ড, জেলার প্রায় ১৪০০ মসজিদের কুরআন শিক্ষা প্রোগ্রামের টাকা এবং অন্যান্য বিভিন্ন ফান্ডের টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

এ বিষয়ে বিষদ অনুসন্ধানের সুপারিশ করে কমিশনে বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

অন্যদিকে, 
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার একটি পুকুরে জলমহালের কার্যাদেশ প্রদানে অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক, সমন্বিত জেলা কার্যালয়, দিনাজপুর-এর একটি এনফোর্সমেন্ট টিম।

দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন- ১০৬) অভিযোগ আসে, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বরুড়া ইউনিয়ন পরিষদে অবস্থিত একটি পুকুরে প্রথম দুই দরদাতাকে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে উপেক্ষা করে তৃতীয় সর্বোচ্চ দরদাতাকে কার্যাদেশ প্রদান করা হয়েছে।

দুদক টিম এ অভিযোগের বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে কথা বলে এবং উক্ত দরপত্র সংক্রান্ত সামগ্রিক তথ্য সংগ্রহ করে। সকল তথ্যাবলি পর্যালোচনা করে কমিশনে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হবে।

এছাড়াও, 
রাজধানীর যাত্রাবাড়ী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে গ্রাহক হয়রানির অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। দুদক টিম উল্লেখিত অফিসে গিয়ে সেবাপ্রার্থীদের সাথে কথা বলে এবং বেশ কিছু পাসপোর্ট নির্ধারিত সময়ে সরবরাহ না করে হয়রানি করা হচ্ছে মর্মে তথ্য পায়।

এ অভিযোগের বিষয়ে সহকারী পরিচালক আফজাউল আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি ওমরাহ্ মৌসুমে পাসপোর্ট প্রিন্টিং এর চাপ থাকায় নির্ধারিত সময়ে পাসপোর্ট দিতে বিলম্ব হচ্ছে বলে জানান।

ক্রাইম ডায়রি///দুদক বিট//অপরাধজগত

6909total visits,235visits today

এটিএম শামসুজ্জামান লাইফ সাপোর্টে আছেন

আয়াতুস সাইফ মুনঃ

রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন একুশে পদকজয়ী অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান। শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছেন তার স্ত্রী রুনি জামান।

বরেণ্য এই অভিনেতার চিকিৎসার বিষয়ে বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন সাংবাদিকদের জানান, এটিএম শামসুজ্জামান এখনও লাইফ সাপোর্টেই আছেন। তার শরীরিক অবস্থা খুব ভালো না আবার খারাপ না। তার শারীরিক অবস্থা এখন খানিক স্থিতিশীল রয়েছে।

তিনি আরো জানান, এটিএম শামসুজ্জামানের পরিবারের কাছ থেকে তিনি জানতে পেরেছেন বিদেশে নেয়ার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে সবুজ সংকেত পাওয়া গেছে। তবে এ বিষয়ে আমি আসলে পুরো নিশ্চিত নই।

গুণী এ অভিনেতা ১৯৪১ সালের ১০ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর দৌলতপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা, পরিচালক, কাহিনীকার, চিত্রনাট্যকার ও গল্পকার। শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা একুশে পদক পেয়েছেন। অভিনয়ের জন্য পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন তিনি।

ক্রাইম ডায়রি//

6909total visits,235visits today

বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ টাঙ্গাইলে ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

টাঙ্গাইল সংবাদদাতাঃ 

  

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ইয়াবাসহ দুজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে টাঙ্গাইল জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। আজ শনিবার টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) শফিকুল ইসলাম এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান। শফিকুল ইসলাম  সাংবাদিকদের বলেন, বিশেষ অভিযানের অংশ হিসেবে গোপন সংবাদে টাঙ্গাইল গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) উত্তর এর সদস্যরা উপজেলার সিলিমপুর এলাকায় সবুজ আল মামুনের ঘরে অভিযান চালায়। এ সময় ঘরের ভেতর থাকা ট্রাভেলিং ব্যাগের মধ্যে থাকা ৪ হাজার ২৫ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

 

তিনি বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে সবুজ আল মামুনের স্ত্রী শারমিন সুলতানা সোমা আক্তার এবং সখীপুর উপজেলার সিলিমপুর বড় মৌষা এলাকার মো. মোংলার ছেলে মো. সোহেল মিয়াকে আটক করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা ট্রাভেলিং এজেন্সি ব্যবসার আড়ালে কক্সবাজার থেকে সুকৌশলে ইয়াবা এনে সখীপুর উপজেলাসহ এর আশেপাশের এলাকাগুলোতে সরবরাহ করে থাকে।

এ বিষয়ে সখীপুর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

ক্রাইম ডায়রি///ক্রাইম//আদালত

6909total visits,235visits today

বঙ্গকন্যা যুক্তরাজ্য সফর শেষে দেশে ফিরেছেন

বঙ্গকন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা   যুক্তরাজ্যে ১০ দিনের সরকারি সফর শেষে দেশে ফিরেছেন ।। আজ শনিবার সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে তাকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটটি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। এর আগে লন্ডনের স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ৩৫ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে হিথ্রো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী। সে সময় বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিম। প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে ছিলেন- পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন, প্রধানমন্ত্রীর বাণিজ্য ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম প্রমুখ। এর আগে গত ১ মে (বুধবার) ১০ দিনের সরকারি সফরে লন্ডন যান প্রধানমন্ত্রী। এর আগে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী লন্ডনে তাজ হোটেলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলোর যুক্তরাজ্য শাখা আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন।

ক্রাইম ডায়রি/// জাতীয়

6909total visits,235visits today