• বুধবার ( সকাল ৬:৪৪ )
    • ২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

নৌকার পালে হাওয়া,বিজয় হবেইঃ শ্বশুরবাড়িতে প্রধানমন্ত্রী

রংপুর  অফ‌িসঃ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার রংপুরের পীরগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত নিবার্চনী জনসভায় নৌকা হাতে উচ্ছাস  কর‌েন। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সারা দেশে নৌকার পালে হাওয়া লেগেছে, নৌকার বিজয় হবেই।দেশের উন্নয়নযাত্রা অব্যাহত রাখতে এই বিজয় জরুরি মন্তব্য করে তরুণসহ সব বয়সী ও শ্রেণি-পেশার মানুষের ভোট চেয়েছেন তিনি।

রোববার সকালে ঢাকা থেকে রংপুরে গিয়ে সেখান থেকে দুপুরে নিজের শ্বশুরবাড়ির এলাকা পীরগঞ্জে যান শেখ হাসিনা। প্রথমেই স্বামী প্রয়াত এম ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত করেন।

পরে নিবার্চনী জনসভায় যোগ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তারুণ্যের কাছে ভোট চাই, মা-বোনদের কাছে ভোট চাই, বয়োবৃদ্ধ মুরুব্বি সবার কাছে ভোট চাই। আপনারা ভোট দেন, আমরা উন্নয়ন দেব, সমৃদ্ধি দেব, সুন্দর জীবন দেব, উন্নত জীবন দেব। দোয়া করবেন, যেন ভালোভাবে কাজ করতে পারি।’

পীরগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত রংপুর-৬ আসনে আগে নিবার্চন করতেন শেখ হাসিনা। ২০১৪ সালের বিজয়ের পর শেখ হাসিনা এই আসন ছেড়ে দিলে সেখানে নিবাির্চত হয়ে জাতীয় সংসদের স্পিকার হন শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তার সমথের্ন পীরগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে নিবার্চনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে মানুষের উন্নতি হয়, তার যথেষ্ট উদাহরণ আপনারা দেখেছেন। আমরা যুব সমাজের জন্য ব্যাপক কমর্সংস্থানের ব্যবস্থা করেছি। কারও কাছে চাকরি চাইতে হবে না, নিজেরা চাকরি দিতে পারবে, সে ব্যবস্থা আমরা করেছি। আমরা তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে দেশকে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাব।’

সবার কাছে দোয়া চেয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আপনাদের কাছে দোয়া চাই, আপনারা দোয়া করবেন, যেন দেশের মানুষের কল্যাণ পারতে পারি। বাংলাদেশ হবে দারিদ্র্যমুক্ত, ক্ষুধামুক্ত সোনার বাংলাদেশ। যে বাংলাদেশ জাতির পিতা শেখ মুজিব চেয়েছিলেন, সেই বাংলাদেশ আমরা করে দেব। আমি বিশ্বাস করি, নৌকার পালে হাওয়া লেগেছে, নৌকার বিজয় হবেই।’

নিবার্চনে আওয়ামী লীগের প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বলেন, ‘আজকে ধানের শীষ করে বিএনপি-জামায়াত জোট। একাত্তর সালে মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধী, গণহত্যা চালিয়েছে, আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে সেই বিএনপি-জামায়াত মিঠাপুকুর, সাদুল্লাপুর, গোবিন্দগঞ্জ, পলাশবাড়ী পুরো এলাকা বাসে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়েছে, গ্রাম পুড়িয়েছে, রাস্তাঘাট কেটে দিয়েছে, গাছ কেটেছে, আপনারা তাদের কথা একবার চিন্তা করুন।

তিনি বলেন, ‘যারা মানুষের গায়ে আগুন দিয়ে পোড়ায়, ওরা মানুষ না, ওরা দানব। ওদের স্থান বাংলার মাটিতে হবে না। আজকে যারা ধানের শীষ নিয়ে আসছে, মানুষ পোড়ার গন্ধ তাদের গায়ে। তাদের থেকে সাবধান থাকবেন। তাদের নেত্রী খালেদা জিয়া চুরি করে আজকে জেলে আছেন। আর তার ছেলে টাকা পাচার করেছে, ১০ ট্রাক অস্ত্র চোরাচালানে ছিল, ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলায় সাজাপ্রাপ্ত, এতিমের টাকা মেরে খেয়েছে, যারা একাধিক সাজাপ্রাপ্ত- এরা দেশের কী উন্নয়ন করবে? এরা দেশের কী কল্যাণ করবে? কাজেই এদের থেকে দেশবাসীকে সাবধান থাকতে হবে।’

পীরগঞ্জের এই জনসভা শেষে দিনাজপুরের উদ্দেশে যাত্রা করেন শেখ হাসিনা। সেখানে কয়েকটি নিবার্চনী সভায় বক্তব্য দেবেন তিনি।

এর আগে রোববার সকালে রংপুরের তারাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ মাঠে এক নিবার্চনী জনসভায় শেখ হাসিনা বলেন, ‘পুরো রংপুর একসময় দুভির্ক্ষপীড়িত এলাকা ছিল। আজকে রংপুরের সেই দুদির্ন চলে গেছে। আজকে সুদিন এসে গেছে। এখন আর মঙ্গা নাই, দুভির্ক্ষ নাই।

‘প্রত্যেকটা মানুষের খাদ্য, চিকিৎসা, শিক্ষা, বাসস্থান সব ব্যবস্থা আওয়ামী লীগ সরকার করে দিয়েছে। এটা হয়েছে একমাত্র আপনারা বারবার নৌকায় ভোট দিয়েছেন সেই কারণে।’

দেশের উন্নয়নে গত দশ বছরে আওয়ামী লীগ সরকার যেসব উদ্যোগ নিয়েছে, তা সম্পন্ন করার জন্য ৩০ ডিসেম্বর আবারও নৌকায় ভোট দিতে রংপুরের ভোটারদের প্রতি আহবান জানান শেখ হাসিনা।

এ জনসভায় তিনি রংপুর-২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রাথীর্ আবুল কালাম আহসানুল হক ডিউক চৌধুরীকে পরিচয় করিয়ে দিয়ে তার জন্য ভোট চান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই এলাকার উন্নয়নে অনেক প্রকল্প হাতে নিয়েছি। এই কাজগুলো শেষ করতে চাই। আমার একটাই লক্ষ্য, আপনারা ভালো থাকবেন। আপনারা নৌকা মাকার্য় ভোট দিবেন, আমাদের প্রাথীের্ক ভোট দিবেন। আমরা যেন আপনাদের সেবা করতে পারি। আমরা নৌকা মাকার্য় ভোট চাই।’

সরকারের উন্নয়নের বিবরণ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী জনসভায় বলেন, ‘আমরা কৃষকদের জন্য দশ টাকায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ করে দিয়েছে। কৃষকদের কাডর্ দিয়েছি। ওই কাডর্ দিয়ে তারা স্বল্পমূল্যে কৃষি উপকরণ কিনতে পারে, সেই ব্যবস্থা আমরা করেছি। কৃষক যাতে উৎপাদিত পণ্যের সঠিক মূল্য পায় তার ব্যবস্থাও আমরা করেছি।’

ক্রাইম  ডায়রি  টিভি

Total Page Visits: 17098

পরিচ্ছন্নকর্মীরাও এখন হতে ফ্ল্যাটে থাকবে

শরীফা  আক্তার  স্বর্নাঃ

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা পরিচ্ছন্নকর্মীদের জন্য ফ্ল্যাট নির্মাণ করে দিয়েছি। খালি বড়লোকেরা ফ্ল্যাটে থাকবে তা হবে না।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরের জনসভামঞ্চে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ঢাকাকে উত্তর ও দক্ষিণ দুভাগে ভাগ করে দিয়েছি। যাতে মানুষ সব সুযোগ-সুবিধা ভালোভাবে পায়। এই যে ঢাকার সুইপার কলোনি, যাদের আমরা পরিচ্ছন্নকর্মী বলি-তাদের জন্য আমি ফ্ল্যাট নির্মাণ করে দিয়েছি। তারা যাতে ভালোভাবে বসবাস করতে পারে।

কারণ তাদের ওপর আমাদের সব পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নির্ভর করে। অথচ তারা মানবেতর জীবনযাপন করবে এটি হতে পারে না। তাই আমরা তাদের জন্য ব্যবস্থা করে দিয়েছি।

ফ্ল্যাট নির্মাণ করেছি। চারটি বিল্ডিং হয়ে গেছে, আরও কয়েকটি হবে। এটি আমরা দক্ষিণে করেছি, উত্তরেও করব। আমি চাই সারা দেশের মানুষ ভালো থাকবে। অর্থাৎ খালি বড়লোকেরা ফ্ল্যাটে থাকবে তা হবে না, বলেন প্রধানমন্ত্রী।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, এই ঢাকা শহরে বস্তিগুলির চরম দুরবস্থা। আমরা তাদের জন্য কামরাঙ্গীরচরে ১০ হাজার ফ্ল্যাট করে দেব। তারা সেখানে দৈনিক অথবা সাপ্তাহিক অথবা মাসিকহারে অল্প ভাড়ায় সেখানে থাকতে পারবে। তারা সেখানে সব সুযোগ-সুবিধা পাবে।

আমরা ঢাকা শহরের নদীগুলোর পুরনো চিত্র ফিরিয়ে আনব। আমরা সেগুলো সংস্কার করে দেব। দুপাশে বাঁধ দিয়ে দেব, যাতে পানি নিষ্কাশনে কোনো সমস্যা না হয়।

এর আগে সোমবার দুপুর ১২টার দিকে তিনি সভামঞ্চে পৌঁছেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত এ জনসভায় রাজধানীর আসনগুলোতে আওয়ামী লীগ ও মহাজোটের প্রার্থীদের পক্ষে ভোট চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ক্রাইমটিভি/ জাতীয়

Total Page Visits: 17098